ঢাকা, বৃহস্পতিবার 24 October 2019, ৯ কার্তিক ১৪২৬, ২৪ সফর ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

পালমিরায় হামলার জন্য জঙ্গিদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছে আমেরিকা: রাশিয়া

পালমিরার কয়েক হাজার বছরের পুরনো থিয়েটার (ফাইল ছবি)

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক:

আমেরিকার পক্ষ থেকে প্রশিক্ষিত জঙ্গিরা সিরিয়ার মধ্যাঞ্চলীয় হোমস প্রদেশের ঐতিহাসিক পালমিরা শহরে হামলা চালানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে খবর দিয়েছে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। ওই মন্ত্রণালয় বলেছে, সিরিয়া থেকে আটক উগ্র জঙ্গিরা এই গোপন পরিকল্পনার কথা ফাঁস করে দিয়েছে।

এক বছর আগে পালমিরা শহরটি উগ্র তাকফিরি জঙ্গি গোষ্ঠী দায়েশের কাছ থেকে পুনরুদ্ধার করে সিরিয়ার সেনাবাহিনী।

তুরস্ক-সমর্থিত ‘ফ্রি সিরিয়ান আর্মি’র সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ‘লায়ন্স অব দ্যা ইস্ট আর্মি’ গোষ্ঠীর আটক দুই জঙ্গি এ তথ্য জানিয়েছে বলে খবর দিয়েছে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। আটক জঙ্গিরা জানিয়েছে, তারা মার্কিন নেতৃত্বাধীন সামরিক জোটের ‘তানাফ’ ঘাঁটি থেকে পালমিরা যাওয়ার পথে সিরিয়ার সেনাবাহিনীর হাতে বন্দি হয়েছেন।

পালমিরা শহরের ঐতিহাসিক স্থাপনা ধ্বংস করছে দায়েশ জঙ্গিরা (ফাইল ছবি)

আটক এক জঙ্গি জানিয়েছেন, মার্কিন সেনা কর্মকর্তারা তাদেরকে সামরিক প্রশিক্ষণ দিয়েছেন এবং মার্কিন সেনা ঘাঁটি থেকে তাদেরকে অস্ত্র সরবরাহ করা হয়েছে।  তিনি আরো জানান, তাদের দায়িত্ব ছিল পালমিরা যাওয়ার পথের বিভিন্ন জনপদে বিক্ষিপ্ত হামলা চালিয়ে জনগণের মধ্যে ভীতি তৈরি করা যাতে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে ৩০০ জঙ্গির একটি শক্তিশালী দল অতর্কিত হামলা চালিয়ে পালমিরা শহরটি দখল করে নিতে পারে।

মার্কিন সরকার সিরিয়ায় এক সময়ে তৎপর উগ্র জঙ্গি গোষ্ঠী দায়েশ বিরোধী যুদ্ধ করার অজুহাতে দেশটিতে সেনা পাঠায়। অবশ্য সিরিয়া থেকে এই জঙ্গি গোষ্ঠীর উৎখাতে আমেরিকার তেমন কোনো ভূমিকা ছিল না। রাশিয়ার সামরিক সহযোগিতা ও ইরানের সামরিক উপদেষ্টাদের পরামর্শ নিয়ে সিরিয়ার সেনাবাহিনীই দেশটি থেকে দায়েশকে উচ্ছেদ করেছে। সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় রুকবান শরণার্থী শিবিরের কাছে মার্কিনীদের ‘তানাফ’ সামরিক ঘাঁটি অবস্থিত। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ