Quantcast
বৃহস্পতিবার ০১ এপ্রিল ২০১০
Online Edition
Twitter
Facebook
Sangram RSS
Our videos
Weather

প্রতিদিনের গুরুত্বপূর্ণ খবর মেইলে পেতে চাইলে গ্রাহক হোন -

Delivered by
FeedBurner

| পড়া হয়েছে: ৩০৯ বার | মন্তব্য টি

মূলপাতা » প্রথমপাতা

কুরআন তিলাওয়াতের পরিবর্তে রবীন্দ্র সঙ্গীত দিয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুষ্ ান শুরু

স্টাফ রিপোর্টার : বাংলাদেশ বিশ্বের তৃতীয় মুসলিম প্রধান দেশ। এ দেশের জনগণের শতকরা ৯৫ ভাগ মুসলমান। মুসলমানদের প্রথা অনুযায়ী কোন অনুষ্ ান পবিত্র কুরআন তিলাওয়াতের মাধ্যমে শুরু করা হয়। কিন্তু অর্থমন্ত্রীর উপস্থিতিতে বাংলাদেশ ব্যাংক পুরস্কার অনুষ্ ানে ব্যাংক কর্তৃপক্ষের নির্দেশে কুরআন তিলাওয়াতের পরিবর্তে রবীন্দ্র সঙ্গীত দিয়ে শুরু করা হয়। এ নিয়ে উপস্থিত বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ও বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। অনুষ্ ানে উপস্থিত অনেকে এটাকে মুসলমানদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত বলে মনে করেন। বর্তমান সরকার যখন ধর্ম নিয়ে উ ে পড়ে লেগেছেন িক এমন সময়ে স্বয়ং অর্থমন্ত্রীর উপস্থিতিতে রবীন্দ্র সঙ্গীত দিয়ে অনুষ্ ান শুরুর প্রতিবাদ না করায় মুসলমানদের অবমাননার শামিল বলে মন্তব্য করেন উপস্থিত অতিথিবৃন্দ। পাশাপাশি তারা এ ঘটনাকে দুঃখজনক উল্লেখ করে বলেন, কোনোক্রমেই এ ধরনের কর্মকান্ড মুসলমানরা মেনে নিতে পারে না।
গতকাল বুধবার বিকেলে রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক আয়োজিত বাংলাদেশ ব্যাংক পুরস্কার ২০০৯ প্রদান অনুষ্ ানে এসব ঘটনা ঘটে। বাংলাদেশ ব্যাংকের গবর্নর ড. আতিউর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ ানে প্রধান অতিথি ছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ইকোনোমিক এসোসিয়েশনের সভাপতি ড. কাজী খলীকুজ্জামান আহমেদ, বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ড. মোশাররফ হুসাইন, বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গবর্নর মুর্শিদ কুলি খান। অন্যান্যের মধ্যে ড. কামাল হোসেন, ড. আকবর আলী খান, ড. মির্জা আজিজুল হক, ড. মোহাম্মদ ইউনুস প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ ানে অধ্যাপক ড. নুরুল ইসলামকে বাংলাদেশ ব্যাংক পুরস্কার ২০০৯ প্রদান করা হয়। পুরস্কার হিসেবে ১টি স্বর্ণপদক, নগদ ২ লাখ টাকা ও বাংলাদেশ ব্যাংকের ক্রেস্ট তুলে দেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ও গবর্নর ড. আতিউর রহমান।
আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, অধ্যাপক ড. নুরুল ইসলাম মেধাবী ও পরিশ্রমী ছাত্র ছিলেন। দেশের অর্থনীতির উন্নয়নে তার অবদান অপরিসীম। ড. নুরুল ইসলাম বাংলাদেশ ব্যাংক পুরস্কার ২০০৯ পাওয়ায় জাতি আজ গর্বিত।
ড. কাজী খলিকুজ্জামান বলেন, বাংলাদেশের অর্থনীতির উন্নতি সাধনের জন্য ড. নুরুল ইসলাম বিভিন্ন গবেষণাধর্মী বই লিখে অর্থনীতিবিদদের যে উৎসাহ যুগিয়েছেন, তাতে তিনি নীতি-নির্ধারকের আসনে সমাসীন। তিনি অর্থনীতির ওপর ২৫টি বই লিখেছেন যা দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে পথ প্রদর্শকের ভূমিকা পালন করছে।
ড. আতিউর রহমান বলেন, দেশীয় আঞ্চলিক ও বৈশ্বিক অঙ্গনে উন্নয়ন অর্থনীতির তাত্ত্বিক গবেষণা ও প্রায়োগিক চর্চায় সুদীর্ঘ ছয় দশক ব্যাপী কর্মজীবনের অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ অধ্যাপক ড. নুরুল ইসলামকে বাংলাদেশ ব্যাংক পুরস্কার ও পদক প্রদান করা হচ্ছে।
কুরআন তিলাওয়াতের পরিবর্তে রবীন্দ্র সঙ্গীত দিয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুষ্ ান শুরু করার ব্যাপারে অনুষ্ ানের পরিচালক বিটিভির সংবাদ পা ক ইমতিয়াজ আহমেদ সিদ্দিকী বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনা অনুযায়ী আমি ঘোষণা দিয়েছি। এখানে আমার কোন হাত ছিলো না। অনুষ্ ানের শুরুতে কুরআন তিলাওয়াত না দেখে আমিও অবাক হয়েছি। উল্লেখ্য, গতকাল বুধবার বাংলাদেশ ব্যাংক আয়োজিত বাংলাদেশ ব্যাংক পুরস্কার ২০০৯ অনুষ্ ানে কুরআন তিলাওয়াতের পরিবর্তে রবীন্দ্র সঙ্গীত দিয়ে অনুষ্ ান শুরু করা হয়। রবীন্দ্র সঙ্গীত শিল্পী মিতা হক অনুষ্ ানের শুরুতে রবীন্দ্রনাথের জগতে আনন্দযোগ্যে আমার নিমন্ত্রণ, আমি তোমারও সঙ্গে বেঁধেছি আমারও প্রাণ সুরেরও বাধনে ও তুমি কেমন করে গান করো হে গুনি আমি অবাক হয়ে শুনি শুধু শুনি। একে একে এই তিনটি গান পরিবেশন করেন।