ঢাকা, মঙ্গলবার 18 December 2012, ৪ পৌষ ১৪১৯, ৪ সফর ১৪৩৪ হিজরী
Online Edition

মুক্তিযোদ্ধাকে হারিয়ে জয়ে ফিরলো শেখ রাসেল

স্পোর্টস রিপোর্টার : গ্রামীণফোন প্রিমিয়ার ফুটবল লিগে জয়ের ধারায় ফিরেছে শিরোপা প্রত্যাশী দল শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র। গতকাল সোমবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে ফেডারেশন কাপ জয়ী দলটি ১-০ গোলে মুক্তিযোদ্ধা সংসদকে হারিয়েছে।  বিজয়ী দলের পক্ষে গোলটি করেন তিন ম্যাচ পর মাঠে ফিরে আসা উইঙ্গার জাহিদ হোসেন। কাগজে-কলমে শক্তিশালী দলটি ম্যাচের শুরু থেকেই মাঝমাঠে প্রাধান্য বিস্তার করে মুক্তিযোদ্ধাকে কোণঠাসা করে ফেলে। তারা একের পর এক আক্রমণ গড়লেও কোচ মারুফুল হকের দলকে গোলের জন্য অপেক্ষায় থাকতে হয়েছে ৩৩ মিনিট। বক্সের ভেতর মুক্তিযোদ্ধার লেফটব্যাক কাঞ্চন গোলরক্ষক জিয়াকে ব্যাক হেড করেন। জাহিদ বল দখলে নিয়ে প্লেসিং শটে গোলটি করেন ১-০। ম্যাচের মাত্র ২০ মিনিটেই এগিয়ে যেতে পারত শেখ রাসেল। ডান পাশ থেকে এমিলির পাসে আনোয়ার হোসেনের শট গ্লাভসে নেন জিয়া। ৫১ মিনিটে গোল পরিশোধের সেরা সুযোগটি কাজে লাগাতে ব্যর্থ হয় মুক্তিযোদ্ধা। স্ট্রাইকার ইউসুফ গোলরক্ষক বিপ্লবকে একা পেয়েও নিশানা ভেদ করতে পারেনি। ম্যাচের ৮৮ মিনিটে মুক্তিযোদ্ধার শেষ সুযোগটি নষ্ট করেন নাইজেরিয়ান স্ট্রাইকার চিগোজি ডার্লিংটন। কাঞ্চনের লম্বা থ্রোতে মাথা ছোঁয়াতে ব্যর্থ হন পোস্টের সামনে থাকা ডার্লিংটন। লিগের তৃতীয় ম্যাচ শেষে শেখ রাসেলের সংগ্রহ দাঁড়ালো ৬ পয়েন্ট। অন্যদিকে এক ম্যাচ বেশি খেলেও মুক্তিযোদ্ধার সংগ্রহ ৬। ম্যাচ শেষে শেখ রাসেল কোচ মারুফুল হক বলেন, এই  ম্যাচে জয় খুব প্রয়োজন ছিল। অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাসের কারণে ফেডারেশন কাপের মতো ভালো খেলতে পারছে না খেলোয়াড়রা। দল ভালো পারফর্ম করতে না পারলেও তিন পয়েন্ট পাওয়ায় খুশি রাসেলের কোচ। অপরদিকে মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কোচ শফিকুল ইসলাম মানিক বলেন, দল ভালো খেললেও দুর্ভাগ্য পরাজয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে হচ্ছে। ভাগ্য পক্ষে না থাকায় হেরেছি। রক্ষণভাগের খেলোয়াড়দের ভুল বুঝাবুঝিতে গোলটি খেতে হয়েছে। দলের আক্রমণভাগের ফুটবলার ইউসুফ সহজ সুযোগ নষ্ট করায় ম্যাচে আর ফিরতে পারিনি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ