ঢাকা, মঙ্গলবার 18 December 2012, ৪ পৌষ ১৪১৯, ৪ সফর ১৪৩৪ হিজরী
Online Edition

বিএনপি-জামায়াত এক সঙ্গে মিলে যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচাতে চায় - তোফায়েল

স্টাফ রিপোর্টার : আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, যত ষড়যন্ত্রই হোক, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হবেই। বিজয় দিবসে মানুষ সারা দেশে বিজয় মিছিল করেছে। তারা শপথ নিয়েছে- যেকোন মূল্যে স্বাধীনতা বিরোধীদের বিচার প্রত্যাশা করে। তিনি বলেন, বিএনপি যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচাতে জামায়াতের পাশে দাঁড়িয়েছে। বিএনপি-জামায়াত এক সঙ্গে মিলে যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচাতে চায়। এজন্য তারা নানা ষড়যন্ত্র অব্যাহত রেখেছে।

গতকাল সোমবার সকালে মহাজোটের শরীক গণতন্ত্রী পার্টি কার্যালয়ে ২২ ডিসেম্বর ১৪ দলের গণমিছিল সফল করতে আয়োজিত এক যৌথ আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়ার সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য রাখেন গণআজাদী লীগের সভাপতি আব্দুস সামাদ, গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক নুরুর রহমান সেলিম, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আফম বাহাউদ্দিন নাছিম, ন্যাপ সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেনসহ ১৪ দলের কেন্দ্রীয় নেতারা।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, জামায়াত-শিবির পুলিশের ওপর চোরাগোপ্তা হামলা চালাচ্ছে। বিএনপি ও জিয়াউর রহমান যদি এদের সুযোগ করে না দিত তবে এরা আজ এদেশে রাজনীতি করতে পারতো না।

রাশেদ খান মেনন বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচারকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে স্কাইপে সংলাপ নিয়ে ষড়যন্ত্র করছে ইকোনমিস্ট পত্রিকাসহ আরো অনেকে।

তিনি বলেন, যারা যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বন্ধ করতে চায় তারা কখনো সফল হবে না। যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচানোর কোন ষড়যন্ত্রই টিকবে না।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, বিজয় দিবসকে কেন্দ্র করে গণজাগরণ ও গণউন্মাদনা সৃষ্টি হয়েছে। যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হবেই। এদের বিচার হলে সারা দেশে জনতার ঢল নামবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ