ঢাকা, বুধবার 12 November 2014 ২৮ কার্তিক ১৪২১, ১৮ মহররম ১৪৩৬ হিজরী
Online Edition

নবাবগঞ্জে হাইব্রিড ও উফশী জাতের ধান চাষে কৃষকদের আগ্রহ

নবাবগঞ্জ (দিনাজপুর) সংবাদদাতা: দিনাজপুরের খাদ্যশস্য ভান্ডার হিসাবে খ্যাত নবাবগঞ্জ উপজেলা। চলতি মওসুমে উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে কৃষকেরা প্রযুক্তি ভিত্তিক প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে উপজেলাকে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ করতে কোমর বেঁধে সুদ ও দাদনের উপর টাকা নিয়ে কৃষক সাধারণ পায়ের ঘাম মাথায় ফেলে উচ্চ ফলনশীল হাইব্রিড ও উফশী জাত ধান চাষ করে রেকর্ড পরিমাণ উৎপাদন অর্জন করছে বলে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তার দপ্তর সূত্রে জানা গেছে। উৎপাদনের সাথে জড়িত থাকা কৃষকেরা জানান অল্প জমিতে অধিক ফসল ফলানোর জন্য তারা হাইব্রিড ও উফশী জাতের ধান উৎপাদনে ঝুঁকে পড়েছে। নবাবগঞ্জ উপজেলা সহকারী কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মোঃ আব্দুল লতিফ জানান  এ মৌসুমে রোপা আমন লক্ষ্য মাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। স্থানীয় জাত ৩শ’ হেক্টর অর্জিত হয়েছে ৪০ হেক্টর, হাইব্রিড ৪১০ হেক্টর অর্জিত ৫৫০ হেক্টর , উফশী ২০৬২০ হেক্টর অর্জিত ২০৮৫০ হেক্টর। মোট লক্ষ্য মাত্রা ২১ হাজার ৩৩০ হেক্টর অর্জিত লক্ষ্য মাত্রা ২১ হাজর ৪৪০ হেক্টর। এছাড়াও নেরিকা প্রণোদনা ৩৬৫ বিঘা রোপণ করা হয়েছে। এতে বিঘা প্রতি ১০ কেজি বীজ, ২০ কেজি ডিএপি সার, ১০ কেজি এমওপি সার কৃষকের মাঝে বিতরণ করা হয়েছে। নেরিকা ধানের গড় ফলন ২.৪০ মেট্রিকটন প্রতি হেক্টর । এছাড়াও ধান, গম, পাট, বীজ উৎপাদন সংরক্ষণ ও সম্প্রসারণ প্রকল্পের অধীনে উপজেলার ৬০ জন কৃষকের মাঝে ৬০টি প্রদর্শনী প্লট রোপণ করা হয়েছে। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ আখেরুর রহমান জানান গড় ফলন চাউল হাইব্রিড ৩.৪৫ মেট্রিক টন প্রতি হেক্টর ও উফশী (গুটি স্বর্ণা) ২.৯৫ মেট্রিক টন প্রতি হেক্টর।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ