ঢাকা, বুধবার 12 November 2014 ২৮ কার্তিক ১৪২১, ১৮ মহররম ১৪৩৬ হিজরী
Online Edition

পাঁচ বছরের শিশু ধর্ষণের শিকার

নীলফামারী সংবাদদাতা: জেলার কিশোরগঞ্জ উপজেলার সদর ইউনিয়নের কেশবা গ্রামে মিষ্টি আক্তার নামে এক পাঁচ বছরের শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে। আহতবস্থায় শিশুটিকে জেলা সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শিশু মেয়েটি কিশোরগঞ্জ উপজেলার পুটিমারী ইউনিয়নের দক্ষিণ ভেড়ভেড়ি গ্রামের খেচুরটারী পাড়ার দিনমজুর রফিকুল ইসলামের মেয়ে। শিশুটি কেশবা গ্রামে তার নানা আব্দুল হামিদ ও নানী শিরিনা বেগমের কাছে থাকতো এবং কেশবা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণীর ছাত্রী। যার রোল-১২)। শিশুটির ডাক্তারি পরীক্ষায় ধর্ষণের আলামত পাওয়া গেছে বলে হাসপাতাল সূত্র জানায়। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত গতকাল সোমবার বিকাল ৪টা মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানায় শিশুটির পিতা। জানা যায়, ঘটনার দিন গত রোববার সকালে মিষ্টি স্কুল যাওয়ার পথে কেশবা গ্রামের সয়ফল হোসেনের পুত্র বেলাল হোসেন (১৮) ওরফে টন্না শিশুটিকে তার ফাঁকা বাড়িতে ডেকে নিয়ে ঘরের ভেতর জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এ সময় শিশুটির চিৎকার ও কান্নাকাটিতে গ্রামের মানুষজন ছুটে এলে ধর্ষক বেলাল পালিয়ে যায়। এলাকাবাসী শিশুটিকে উদ্ধার করে কিশোরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে দেয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাকে নীলফামারী সদর আধুনিক হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে পাঠানো হয়। এ হাসপাতালের ১২ নম্বর বিছানায় তার চিকিৎসা চলছে। কিশোরগঞ্জ থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মামলা পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এলাকাবাসীর অভিযোগ বেশ কিছুদিন আগে বেলাল আরেকটি মেয়েকে ধর্ষণ করেছিল। সেটি এলাকার প্রভাবশালীরা অর্থের বিনিময়ে ধামাচাপা দেয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ