ঢাকা, বুধবার 12 November 2014 ২৮ কার্তিক ১৪২১, ১৮ মহররম ১৪৩৬ হিজরী
Online Edition

জিমিদের শাস্তি মওকুফের বিষয়ে সিদ্ধান্ত কাল

স্পোর্টস রিপোর্টার : বৃহস্পতিবার বিমান বাহিনীর ফ্যালকন হলে হকি ফেডারেশনের সভাপতিসহ কার্যনির্বাহী পরিষদের সভায় তিন নিষিদ্ধ খেলোয়াড় রাসেল মাহমুদ জিমি, জাহিদ হোসেন, ইরফানুল হক পিন্টুর শাস্তি মওকুফের বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। গত বছর নবেম্বরে নিষিদ্ধ হয়েছিলেন চার হকি খেলোয়াড়। ইতোমধ্যেই কামরুজ্জামান রানা মুক্তি পেয়েছে নিষেধাজ্ঞা থেকে। বাকিরাও বিভিন্ন মেয়াদে সাজা থেকে মুক্তি পাবেন এমন আভাষ মিলেছে হকি ফেডারেশনের কর্মকর্তাদের পক্ষ থেকে। কয়েক মাস আগে হকি ফেডারেশন বরাবর সাজা মওকুফের জন্য ক্ষমা চেয়ে আবেদন করেন নিষিদ্ধ চার খেলোয়াড়। সেই প্রেক্ষিতে সবার আগে মুক্তি পান কামরুজ্জামান রানা। তবে বাকিদের সাজার মেয়াদ বেশি থাকায় সে বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসেনি এখনও। এ বিষয়ে হকি ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক খাজা রহমত উল্লাহ বলেন, ‘বৃহস্পতিবার এক সভায় জিমি জাহিদ ও পিন্টুর বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে। কামরুজ্জামান রানার শাস্তি কম থাকায় আগের বৈঠকেই তার সাজা মওকুফ করে দেয়া হয়েছে।’ হকি ফেডারেশনের যুগ্ম সম্পাদক আনভির আদিল খান বলেন, ‘আমরা তো চাই সবাই খেলায় থাকুক। তবে জাতীয় দলে ফিরতে হলে ফর্মে ফিরতে হবে। আবারও নিজেকে প্রমাণ করতে হবে।’ উল্লেখ্য, এশিয়া কাপে খারাপ খেলার কারণে চার সিনিয়র খেলোয়াড় রাসেল মাহমুদ জিমি, জাহিদ হোসেন, ইরফানুল হক পিন্টু ও কামরুজ্জামান রানাকে বিভিন্ন মেয়াদে জাতীয় দল ও ঘরোয়া হকিতে নিষিদ্ধ করেছিল ফেডারেশন। জিমি, জাহিদ এবং পিন্টুকে জাতীয় দলে ৩ বছর ও ঘরোয়া হকিতে ২ বছর নিষিদ্ধ করা হয়েছিল ২০১৩ সালের নবেম্বরে। আর রানার শাস্তির মাত্রা ২ ও ১ বছর।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ