ঢাকা, বৃহস্পতিবার 20 September 2018, ৫ আশ্বিন ১৪২৫, ৯ মহররম ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

জনগণ শিগগিরই তাঁবেদার সরকারকে উৎখাত করবে --- মির্জা ফখরুল

স্টাফ রিপোর্টার : সরকারবিরোধী আন্দোলনে জনগণের সাড়া পাচ্ছে না- প্রধানমন্ত্রীর এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আন্দোলনে জনগণের পূর্ণ সমর্থন আছে। শিগগির জনগণ সংগঠিত হয়ে এ তাঁবেদার সরকারকে উৎখাত করবে। শেখ মুজিবের মতো একদলীয় শাসনের দিকে গিয়ে শেখ হাসিনা বাবার মতোই ভুল করছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। গতকাল বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করে বলেন, ওরা এখনও বাংলাদেশকে তাদের পৈতৃক সম্পত্তি মনে করে। এজন্য বলে, বাংলাদেশে থাকতে হলে জয়বাংলা বলতে হবে। 
 মজলুম জননেতা মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীর ৩৮তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ‘মওলানা ভাসানী আদর্শ অনুসরণে বর্তমান রাজনৈতিক সঙ্কট উত্তরণে আমাদের করণীয়’ শীর্ষক আলোচনা সভার আয়োজন করে ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (ন্যাপ ভাসানী)।
উল্লেখ্য বুধবার জাতীয় সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্বে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছিলেন, কিছু দল সরকার উৎখাত ও আন্দোলনের সময় দিয়েও জনগণের সাড়া পাচ্ছে না। এর অর্থ এ সরকারের ওপর জনগণের সম্পূর্ণ আস্থা ও বিশ্বাস রয়েছে।
প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্যের সমালোচনা করে মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, আন্দোলনে জনগণের পূর্ণ সমর্থন আছে। নিবার্চনকে কেন্দ্র করে ৩১০ জনকে হত্যা, ৬৫ জনকে গুম করেছেন। তারপরও মানুষকে ভোটকেন্দ্রে নিতে পারেননি। একতরফা নির্বাচনে দেশ-বিদেশে কেউ সমর্থন দেয়নি। ইউরোপীয় ইউনিয়ন, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য সবাই বলছে অতি দ্রুত আরেকটি নিবার্চনের ব্যবস্থা করুন। কিন্তু তাদের কথায় কান দিচ্ছেন না।
মির্জা ফখরুল বলেন, ঘরে-বাইরে মানুষের জীবনের কোনো নিরাপত্তা নেই। দিনের বেলাও খুন হয়। পুলিশ ধরে নিয়ে গুলি করে। গুম করে। এজন্য মানুষের হদিস মিলছে না। নিজেদের বেঁচে থাকার অধিকার ফিরিয়ে আনতে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন ছাড়া আর কোনো পথ নেই। এখানেই সব সমস্যার সমাধান। শেষ পর্যন্ত সরকার সোনার চোরাচালানের সঙ্গেও জড়িয়ে পড়েছে। তারা এখন আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর হাতে ধরা পড়ছে। অনুসন্ধান করলে আরও ভয়বহ কিছু বেরিয়ে আসবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ