ঢাকা,বৃহস্পতিবার 15 November 2018, ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

বিশ্বে এক-তৃতীয়াংশ নারী নির্যাতনের শিকার

বিশ্বের এক-তৃতীয়াংশ নারী বাসা-বাড়িতে শারীরিক নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন। এসব নির্যাতন বন্ধে বর্তমানে যেসব প্রচেষ্টা চালু আছে তা অপর্যাপ্ত। বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার ধারাবাহিক গবেষণায় এ তথ্য  উঠে এসেছে।
রিপোর্টে বলা হয়, বিশ্বের ১০ থেকে ১৪ কোটি নারী যৌন অঙ্গচ্ছেদের শিকার। আনুমানিক ৭ কোটি মেয়েদের বিয়ে সম্পন্ন হচ্ছে ১৮ বছর হবার আগেই। প্রায়ই তা হয়ে থাকে তাদের মতের বিরুদ্ধে। প্রায় ৭ শতাংশ নারীর জীবদ্দশায় ধর্ষিত হবার ঝুঁকি রয়েছে। দ্বন্দ্ব আর মানবাধিকার সঙ্কটের সময় এসব সহিংসতা বৃদ্ধি পায়। আর নির্যাতনের শিকার মেয়ে ও নারীদের শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের ওপর চরম প্রভাব পড়ে।
গবেষণায় বলা হয়, কঠোর এবং দূরদৃষ্টি সম্পন্ন আইন আছে এমন জায়গাগুলোতেও নারীরা বৈষম্য, সহিংসতার শিকার হচ্ছে। এমনকি তারা পাচ্ছেন না পর্যাপ্ত স্বাস্থ্য ও আইনি সেবা।
গবেষণাটির সহ-গবেষক এবং লন্ডন স্কুল অব হাইজিন এবং ট্রপিক্যাল মেডিসিনের প্রফেসর শার্লোট ওয়াটস বলেন, কোন জাদুর ছড়ি নারী ও মেয়েদের বিরুদ্ধে নির্যাতন নির্মূল করবে না। কিন্তু তথ্য-প্রমাণে ইঙ্গিত মেলে দৃষ্টিভঙ্গি ও আচরণে পরিবর্তন আনলে এটা সম্ভব। আর এক প্রজন্ম সময়ের আগেই তা অর্জন করা সম্ভব।
গবেষকরা বলছেন, সরকারগুলোর উচিত নির্যাতনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে অধিকতর পৃষ্ঠপোষকতা করা। তাদের এটা দেখতে পারা উচিত যে, এটা অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতেও প্রতিবন্ধকতা হিসেবে কাজ করে। এছাড়াও বিশ্ব নেতাদের উচিত বৈষম্যমূলক আইন পরিবর্তন করা। যেসব প্রতিষ্ঠান অসাম্যতা উৎসাহিত করে আরও সহিংসতার ক্ষেত্র তৈরি করে দেয় সেগুলোকে পরিবর্তন করা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ