ঢাকা, মঙ্গলবার 19 March 2019, ৫ চৈত্র ১৪২৫, ১১ রজব ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

মেঘনায় কার্গো ডুবি : ৮ শ্রমিক উদ্ধার, নিখোঁজ ১

সংগ্রাম ডেস্ক : লক্ষ্মীপুরের মেঘনা নদীতে সিটি কোম্পানির লাইটারেজ জাহাজ ও লবণবাহী কার্গোর সংঘর্ষে সাড়ে ৪ হাজার মণ লবণসহ মালবাহী কার্গোটি নদীতে ডুবে গেছে।
এসময় মালবাহী কার্গোর ৮ শ্রমিককে উদ্ধার করা হয়েছে। নিখোঁজ রয়েছেন নুরুল ইসলাম মাঝি নামের এক শ্রমিক।  শুক্রবার ভোররাতে ঘটনাটি ঘটেছে।
নিখোঁজ কার্গোর শ্রমিক নুরুল ইসলাম কক্সবাজার জেলার মহেষখালী উপজেলার মিয়ারপাড়া গ্রামের গনুমিয়ার ছেলে।
উদ্ধারকৃত কার্গোর ৮ শ্রমিকও একই এলাকার বলে জানিয়েছে কমলনগর থানার ওসি মো. হুমায়ুন কবির। কার্গোটি উদ্ধারের জন্য চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ।
কমলনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. হুমায়ুন কবির শনিবার দুপুরে সাংবাদিকদের জানান, শুক্রবার রাতে এরিন-জেরিন-শিরিন নামে একটি মালবাহী কার্গো সাড়ে ৪ হাজার মণ লবণ নিয়ে কক্সবাজার থেকে ঝালকাঠির উদ্দেশ্যে রওনা দেয়।
কার্গোটি শুক্রবার ভোর রাতে মেঘনা নদীর কালিগঞ্জের মেহেদীগঞ্জ এলাকায় পৌঁছালে সিটি কোম্পানির লাইটারেজ জাহাজের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়।
এসময় ৯ শ্রমিক ও সাড়ে ৪ হাজার মণ লবণসহ কার্গোটি নদীতে ডুবে যায়।
লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলার মতিরহাট এলাকার মেঘনা নদীতে মাছ ধরার একটি ট্রলার ৮ শ্রমিককে ভাসতে দেখে। তাদের উদ্ধার করে পুলিশে খবর দেয়।
উদ্ধারকৃত শ্রমিকরা হলেন; কক্সবাজার জেলার মহেষখালী উপজেলার মিয়ারপাড়া এলাকার মনু মিয়ার ছেলে মজ্জল হোসন, আবদুর রহিমের ছেলে কুতুব উদ্দিন, আবদুল খালেকের ছেলে মহিউদ্দিন, শওকত হোসেন, এনামুল হক, সালাউদ্দিন ও গনুমিয়াসহ ৮ শ্রমিক।
অপর কার্গো শ্রমিক নুরুল ইসলাম এখনো নিখোঁজ রয়েছেন বলে জানান তিনি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ