ঢাকা, শুক্রবার 16 November 2018, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

সার্কে অনিশ্চিত তিন চু্ক্তি

১৮তম সার্ক সম্মেলনে সম্ভাব্য যে তিন চুক্তি হওয়ার কথা ছিল তা আর হচ্ছে না। নেপালের রাজধানী কাঠমন্ডুতে আগামী ২৬-২৭ নভেম্বর ১৮তম সার্ক শীর্ষ সম্মেলনের মূল পর্ব শুরুর তিনদিন আগেই এই খবর প্রকাশিত হলো।
বহুল আলোচিত যেই তিন চুক্তির জন্য এবারের সার্ক শীর্ষ সম্মেলন অনেক দিন ধরে আলোচিত হচ্ছিল সেই প্রধান তিন চুক্তি স্বাক্ষর নিয়ে দেখা দিয়েছে চরম অনিশ্চয়তা।
আজ রোববার সকালে কাঠমন্ডুর হোটেল সল্টিতে শুরু হওয়া সার্কের আট সদস্য রাষ্ট্রের পররাষ্ট্র সচিবের দুইদিনের বৈঠকের প্রথম দিন শেষে এ তথ্য জানা গেল।
রোববার রাতে সাংবাদিকদের এক ব্রিফিংয়ে পররাষ্ট্র সচিব মো: শহীদুল হক এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, কয়েকটি দেশের প্রস্তুতির অভাবেই এই অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে বলেও জানান পররাষ্ট্র সচিব।
তবে, কোন কোন দেশের প্রস্তুতির অভাবে এমনটি হলো সে ব্যাপারে কিছু পরিস্কার করেননি পররাষ্ট্র সচিব। তিনি শুধু বলেন, কয়েকটি দেশ চু্ক্তির ব্যাপারে এখনো প্রস্তুত হতে পারেনি।
উল্লেখ্য, যেই বহুল আলোচিত তিন চুক্তি এবারের সার্ক শীর্ষ সম্মেলনে স্বাক্ষরিত হওয়ার কথা ছিল তা হলো-সার্ক বিদ্যুৎ সহযোগিতা বিষয়ক চুক্তি, সদস্য দেশগুলোর মধ্যে যাত্রী ও পণ্য পরিবহনের জন্য সার্ক আঞ্চলিক রেল সহযোগিতা চুক্তি এবং সার্ক পণ্য ও যাত্রীবাহী মোটরযান চলাচল বিষয়ক চুক্তি।
উল্লেখ্য, এর আগে প্রথম দিনেই সার্কের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আট দেশের যুগ্ম-সচিবদের অংশগ্রহণে প্রোগ্রামিং কমিটির সভায় সার্কের ১১টি কেন্দ্রের মধ্যে তিনটি কেন্দ্রই বাতিল এবং চারটি কেন্দ্রকে একীভূত করে একটি কেন্দ্র করার সুপারিশ করা হয়।
এভাবে একের পর এক ব্যর্থতার রেকর্ড নিয়ে শেষ পর্যন্ত দক্ষিণ এশীয় দেশগুলোর পারস্পরিক সহযোগিতার ভিত্তিতে আঞ্চলিক উন্নয়নের লক্ষ্যমাত্রা কতটা শেষ পর্যন্ত অর্জিত হবে তা নিয়ে এখন শঙ্কা অনেকেরই।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ