ঢাকা, বুধবার 21 November 2018, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

লতিফকে গ্রেপ্তারে স্পিকারের অনুমতি লাগবে না

সংসদ সদস্য পদ বহাল থাকার পাশাপাশি সংসদ অধিবেশন চলমান থাকায় লতিফ সিদ্দিকীকে গ্রেপ্তারে কিছু আইনী জটিলতা রয়েছে বলে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বক্তব্য দিলেও স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ থেকে অপসারিত লতিফ সিদ্দিকীকে গ্রেপ্তার করতে স্পিকারের অনুমতির প্রয়োজন নেই ।
স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর আজ সোমবার দুপুরে দেওয়া মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে স্পিকার বলেন, ‘কার্যপ্রণালী বিধি অনুযায়ী শুধু সংসদ লবি, গ্যালারি ও চেম্বার থেকে কোনো সংসদ সদস্যকে গ্রেপ্তার করার ক্ষেত্রে স্পিকারের অনুমতির প্রয়োজন হয়। এছাড়া কোনো অনুমতি লাগে না।’
শিরীন শারমিন আরো বলেন, স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী যেটা বলেছেন তা ভুল। এটা স্পিকারের কোনো বিষয় না। তবে প্রচলিত আইনে সংসদ অধিবেশন শুরু হওয়ার ১৪ দিন আগে ও সংসদ অধিবেশন শেষ হওয়ার ১৪ দিন পর্যন্ত কোনো সিটিং এমপিকে গ্রেপ্তার করা যাবে না বলা আছে। এটিও ১৯৬৩ ও ১৯৬৫ সালের পাকিস্তান আমলের আইনে বলা আছে। সেই আইনের কারণেই তাকে গ্রেপ্তারের বিভ্রান্তি হচ্ছে।
এর আগে সোমবার দুপুরে সচিবালয়ে সংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, “তাকে গ্রেপ্তারের জন্য স্পিকারের অনুমতি নিতে হবে।’ তবে কবে নাগাদ তাকে গ্রেফতার করা হবে এমন প্রশ্ন করা হলে তিনি বিষয়টি এড়িয়ে যান।
লতিফ সিদ্দিকীকে গ্রেফতার করতে না পারায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কোনো ব্যর্থতা নেই দাবি করে আসাদুজ্জামান খান বলেন, “তাকে গ্রেফতারে আইনি জটিলতা আছে। এরচেয়ে বেশি আমি জানি না।”

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ