ঢাকা, বুধবার 21 November 2018, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

পশ্চিম তীর হবে ইসরাইলের জন্য জাহান্নাম

অধিকৃত জর্দান নদীর পশ্চিম তীর অচিরেই ইহুদিবাদী ইসরাইলের জন্য জাহান্নামে পরিণত হবে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছে ইরান। ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের বিপ্লবী গার্ড বাহিনী- আইআরজিসি’র সেকেন্ড-ইন-কমান্ড ব্রিগেডিয়ার জেনারেল হোসেইন সালামি এ হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।
তিনি বলেছেন, “অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকা ও পশ্চিম তীরের সব ফিলিস্তিনি মিলে অধিকৃত গোটা ভূখণ্ডকে ইসরাইলের জন্য নরকে পরিণত করবে। জেনারেল সালামি গতকাল রোববার তেহরানে এক অনুষ্ঠানে আরো বলেন, সেদিন বেশি দূরে নয় যেদিন পশ্চিম তীরে ও গাজা উপত্যকার সন্তানরা হাতে হাত মিলিয়ে পশ্চিম তীরকে ইসরাইলের জন্য চরম নিরাপত্তাহীন করে তুলবে।”
ফিলিস্তিনিদের প্রতিরোধ সংগ্রামের মোকাবিলায় ইসরাইলের প্রতি মার্কিন সমর্থনকে অকার্যকর হিসেবে উল্লেখ করে আইআরজিসি’র এ কমান্ডার বলেন, “আমেরিকা কখনোই ইসরাইলের নিরাপত্তা দিতে পারবে না। কারণ, লেবাননের হিজবুল্লাহ এবং গাজা উপত্যকার হামাস ও ইসলামি জিহাদ আন্দোলনের ক্ষেপণাস্ত্রের আওতায় রয়েছে ইসরাইল।”
এর আগে ইসলামি ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী গত ২৫ নভেম্বর বলেছিলেন, গাজা উপত্যকার মতো পশ্চিম তীরের ফিলিস্তিনিদেরও অস্ত্র হাতে তুলে নিতে হবে। ইসরাইলবিরোধী প্রতিরোধ সংগ্রামীদের প্রতি তেহরানের সর্বাত্মক সমর্থনের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ইরান যেমন লেবাননের হিজবুল্লাহকে পৃষ্ঠপোষকতা দিয়েছে তেমনি গাজার হামাসকেও সামরিক সহযোগিতা দিয়েছে। এখানে মাজহাবগত কারণে কারো সঙ্গে বৈষম্য করেনি তেহরান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ