ঢাকা, বৃহস্পতিবার 19 September 2019, ৪ আশ্বিন ১৪২৬, ১৯ মহররম ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

মালয়েশিয়ার সঙ্গে চার চুক্তি-সমঝোতা স্মারক সই

অনলাইন ডেস্ক: জনশক্তি রপ্তানি, ভিসা প্রক্রিয়া সহজ করা, পর্যটন খাতে সহযোগিতা এবং সাংস্কৃতিক বিনিময়ের মাধ্যমে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক আরো এগিয়ে নিতে মালয়েশিয়ার সঙ্গে একটি চুক্তি ও তিনটি সমঝোতা স্মারক সই করেছে বাংলাদেশ।

বুধবার পুত্রাজায়ায় মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের মন্ত্রীরা এসব চুক্তি ও সমঝোতা স্মারকে সই করেন।

স্বাক্ষরিত চুক্তির মধ্যে ভিসা সহজ করা রয়েছে। আর সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে জনশক্তি রপ্তানির বিষয়ে। এ ব্যাপারে ২০১২ সালে গৃহীত সমঝোতা স্মারকের প্রটোকল সংশোধনী আনা হয়।

এছাড়া পর্যটন বিষয়ে একটি এবং শিল্প-সংস্কৃতি ও ঐহিত্য বিনিময় বিষয়ে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে।

এর আগে বিকেলে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ে পৌঁছলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে লাল গালিচা সংবর্ধনা দেওয়া হয়। দেশটির স্থানীয় সময় বিকেল তিনটায় শেখ হাসিনা মোটর শোভাযাত্রা করে পারদানা স্কয়ারে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ে পৌঁছালে নাজিব রাজাক গাড়ি পর্যন্ত গিয়ে তাকে স্বাগত জানান।

এ সময় একটি শিশু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। তিনিও ওই শিশুকে আদর করে দেন।

গাড়ি থেকে নেমে লাল গালিচায় হেঁটে শেখ হাসিনা মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের নিচতলায় অনুষ্ঠানস্থলে যান। এ সময় দুই পাশে সারি বেঁধে দাঁড়ানো মালয়েশিয়ার মন্ত্রিসভার সদস্য, জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা ও কূটনীতিকরা তাকে স্বাগত জানান।

দুই প্রধানমন্ত্রী অনুষ্ঠানস্থলে পৌঁছালে দুই দেশের জাতীয় সংগীত বাজানো হয়। একটি চৌকস দল এ সময় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে গার্ড অব অনার দেয়।

এরপর দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী নিজ নিজ প্রতিনিধি দলের সদস্য ও কর্মকর্তাদের পরিচয় করিয়ে দেন। পরে তারা ফটো সেশনে অংশ নেন। প্রাথমিক আনুষ্ঠানিকতা শেষে বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে শুরু হয় দ্বিপক্ষীয় বৈঠক। এই বৈঠকে চারটি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়।

তিন দিনের সফরে মঙ্গলবার মালয়েশিয়ায় যান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। টানা দ্বিতীয় মেয়াদে সরকার প্রধানের দায়িত্ব নেওয়ার পর মালয়েশিয়ায় এটা তার প্রথম সফর।

সফরে রাতে মালয়েশিয়া প্রবাসী বাংলাদেশিদের একটি দল প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেন। বুধবার সকালে বাংলাদেশের ব্যবসা ও বিনিয়োগ সম্ভাবনা নিয়ে আয়োজিত একটি সংলাপে অংশ নেন। সফর শেষে আগামীকাল বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীর ঢাকা ফেরার কথা রয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ