ঢাকা,বৃহস্পতিবার 15 November 2018, ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

সাংবাদিক উদ্ধারে যুক্তরাষ্ট্রের গোপন অভিযান ব্যর্থ

আল কায়েদার ইয়েমেন শাখার হাতে আটক এক মার্কিন নাগরিককে উদ্ধারের ব্যর্থ চেষ্টার কথা স্বীকার করেছে যুক্তরাষ্ট্র। গতকাল বৃহস্পতিবার প্রথমবারের মতো প্রকাশ্যে বিষয়টি প্রকাশ করে মার্কিন কর্তৃপক্ষ।
ইয়েমেনের আল কায়েদা গোষ্ঠী অপহৃত ঐ মার্কিন নাগরিকের একটি ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়। সেখানে তাকে হত্যার হুমকি দেয়া হয়েছে।
যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা বলেন, প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা নভেম্বরে ৩৩ বছর বয়সী মার্কিন সাংবাদিক লুকে সোমেরসকে উদ্ধারের জন্য গোপন অভিযানের অনুমতি দিয়েছিলেন।
কর্মকর্তারা আরো বলেন, যে স্থান লক্ষ করে মার্কিন গোপন অভিযান চালানো হয়েছিল অপহৃত সোমেরস সেখানে ছিলেন না। তবে সেখানে থাকা বাকি অপহৃতদের মুক্ত করা হয়েছে।
সাংবাদিক লুকে সোমেরসকে ইয়েমেনের রাজধানী সানা থেকে ২০১৩ সালের সেপ্টেম্বরে অপহরণ করে আল কায়েদা।
হোয়াইট হাউজের জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিলের মুখপাত্র বার্নাদিত্তে মিহান বলেন, “যত দ্রুত সম্ভব মার্কিন সরকার নির্ভরযোগ্য গোয়েন্দা ও অভিযান নিয়ে একটি পরিকল্পনা গ্রহণ করে। প্রেসিডেন্ট প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়কে দায়িত্ব দেন সোমেরসকে উদ্ধারে অভিযান পরিচালনার জন্য। কিন্তু দুঃখের সঙ্গে জানাচ্ছি, সেখানে সোমেরস ছিলেন না।”
পেন্টাগনের মুখাপাত্র রিয়ার অ্যাডমিরাল জন কিরবি বলেন, ইয়েমেনের সেনাবাহিনীর সঙ্গে যৌথভাবে এই উদ্ধার অভিযান চালানো হয়। এতে বিমান ও পদাতিক বাহিনীও অংশ নিয়েছে।
‘তবে অভিযানের বিস্তারিত গোপনীয়,’ বলেন কিরবি।
এরআগে ইয়েমেনের কর্মকর্তারা বলেছিলেন, হাদ্রামওত প্রদেশের পূর্বাঞ্চলে প্রত্যন্ত হাজর এজ-সেইয়ার জেলার একটি কূপে অভিযান চালানো হয়। মার্কিন ও ইয়েমেনি নিরাপত্তা বাহিনীর এই অভিযানে ৬ জন ইয়েমেনি, একজন সৌদি এবং একজন ইথিওপিয়ানকে উদ্ধার করা হয়। এ সময় আল-কায়েদার সাত অপহারককে হত্যা করা হয়।
আরব উপদ্বীপের আল-কায়েদা (একিউএপি) সম্প্রতি ইন্টারনেটে মার্কিন সাংবাদিক সোমেরসকে হত্যার হুমকি দিয়ে একটি ভিডিও পোস্ট করার পরই যুক্তরাষ্ট্র প্রশাসনের পক্ষ থেকে গোপন অভিযানের বিষয়টি প্রকাশ করা হল।
ভিডিওতে বেশকিছু দাবি জানানো হয়। সেগুলো পূরণ করা না হলে ওই সাংবাদিককে হত্যা করা হবে বলে হুমকি দেয়া হয়। তবে সেই দাবিগুলো কি তা ভিডিওতে জানানো হয়নি। তাদের দাবিগুলোর ব্যাপারে মার্কিন সরকার অবহিত রয়েছে বলে ভিডিওতে জানানো হয়েছে।
ভিডিওতে সোমেরস বলেন, তিনি যুক্তরাজ্যে জন্মগ্রহণ করেছেন এবং যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকত্ব রয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ