ঢাকা, শনিবার 17 November 2018, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

লতিফ সিদ্দিকীর জামিন নাকচ

অনলাইন ডেস্ক: ইসলাম ধর্ম সম্পর্কে চরম আপত্তিকর মন্তব্যের পর দলীয় পদ ও মন্ত্রিত্ব হারানো আব্দুল লতিফ সিদ্দিকীর জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে দিয়েছেন আদালত। অভিযোগ গঠনের বিষয়ে শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে আগামী ১৫ মার্চ। আজ রোববার ঢাকা মহানগর হাকিম আসাদুজ্জামান নূর এ আদেশ দেন।

অ্যাডভোকেট এ এম এম আবেদ রাজার দায়ের করা মামলাটিতে জামিনের আবেদন জানিয়েছিলেন লতিফ সিদ্দিকীর আইনজীবী ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া।  তিনি অভিযোগ গঠনের শুনানির বিষয়ে দুই মাস সময়ের আবেদন জানান। তিনি বলেন, লতিফ সিদ্দিকী অসুস্থ। পরে আদালত লতিফ সিদ্দিকীর জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেন।

এর আগে গত ৩০ নভেম্বর মামলাটির বিচার শুরুর জন্য মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আসাদুজ্জামান নূরের আদালতে বদলির আদেশ দেন ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) বিকাশ কুমার সাহা। একইসঙ্গে রোববার অভিযোগ (চার্জ) গঠনের শুনানির জন্য দিন ধার্য করেন তিনি।

গত ২৮ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসে প্রবাসী টাঙ্গাইল সমিতির সমাবেশে হজ, তাবলিগ জামাত ও প্রধানমন্ত্রীর পুত্র সজীব ওয়াজেদ জয়কে নিয়ে কটূক্তি করেন তৎকালীন ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী আব্দুল লতিফ সিদ্দিকী।

তার এসব মন্তব্য নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার ঝড় বয়ে যায় পুরো দেশজুড়ে। রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে তার বিরুদ্ধে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেওয়ার অভিযোগে দায়ের করা হয় মোট ১৮টি মামলা। এসব মামলার মধ্যে ঢাকার ৭টিসহ মোট ১১টিতে জারি করা হয় গ্রেফতারি পরোয়ানা।

গত ১২ অক্টোবর তাকে মন্ত্রিসভা থেকে অপসারণের প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। ওইদিনই আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্যপদ থেকে তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। পরে তার দলের প্রাথমিক সদস্যপদও বাতিল করা হয়।

দীর্ঘদিন বিদেশে অবস্থানের পর ২৩ নভেম্বর রাতে ভারত থেকে দেশে ফেরেন লতিফ সিদ্দিকী। রাত আটটা ৪০ মিনিটে ইন্ডিয়ান এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছেই আত্মগোপনে চলে যান তিনি।

তাকে গ্রেফতার করা নিয়ে নানা নাটকীয়তা তৈরি হলে তাকে গ্রেফতারের দাবিতে ২৫ নভেম্বর সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডাকে ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (এনডিএফ)। এছাড়া তাকে গ্রেফতার না করা হলে ২৬ নভেম্বর ইসলামী ঐক্যজোট ও ২৭ নভেম্বর হেফাজতে ইসলাম হরতালের ঘোষণা দিয়ে রাখে। তবে ২৫ নভেম্বর লতিফ সিদ্দিকীর আত্মসমর্পণের পর তাকে কারাগারে পাঠানো হলে এনডিএফ ৪ ঘণ্টা হরতাল কমায় ও অন্যরা হরতাল প্রত্যাহার করে নেয়।

বিভিন্ন ইসলামি সংগঠন লতিফ সিদ্দিকীর বিচারের দাবিতে এখনও আন্দোলন করে আসছে।
আ.হু/সংগ্রাম

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ