ঢাকা, রোববার 23 September 2018, ৮ আশ্বিন ১৪২৫, ১২ মহররম ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

খালেদা জিয়ার দুর্নীতি মামলার সাক্ষ্য গ্রহণ মূলতবির আবেদন খারিজ

সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জিয়া অরফানেজ ট্রাষ্ট সংক্রান্ত দুর্নীতি মামলায় সাক্ষ্য গ্রহণ মূলতবি চেয়ে করা আবেদন খারিজ করে দিয়েছে আদালত।
ঢাকা আলিয়া মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে স্থাপিত অস্থায়ী আদালতের বিচারক বাসুদেব রায়ের আদালত খালেদা জিয়ার পক্ষে আনা আবেদন খারিজ করে সাক্ষ্য গ্রহণ শুরু করতে আদেশ দেয়।
এ আদেশের পর সাক্ষ্য গ্রহণ বাধাগ্রস্ত করতে আসামিপক্ষের আইনজীবীরা এজলাস কক্ষে বিক্ষোভ করে। জিয়া অরফানেজ ট্রাষ্ট-সংক্রান্ত দুর্নীতি মামলার বাদী দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) উপ-পরিচালক হারুনুর রশীদ তার অসমাপ্ত সাক্ষ্য দিতে আদালতে উপস্থিত ছিলেন।
এর আগে জিয়া অরফানেজ ট্রাষ্ট-সংক্রান্ত দুর্নীতি মামলার বাদী হারুনুর রশীদ আদালতে গত ২২ সেপ্টেম্বর ও ১ ডিসেম্বর আংশিক সাক্ষ্য দেন। খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতেই মামলায় সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়।
আজ খালেদা জিয়ার পক্ষে তার আইনজীবীরা আরো সময়ের আবেদন করে। আদালত তা নামঞ্জুর করে সাক্ষ্যগ্রহণ শুরুর আদেশ দেয়। আজ আদালতে খালেদা জিয়া হাজির হননি।
জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের নামে দুর্নীতির অভিযোগে ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় দুদক মামলা দায়ের করে। এ মামলায় ২০০৯ সালের ৫ আগস্ট দুদক অভিযোগপত্র দাখিল করে। জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাষ্টের নামে অবৈধভাবে অর্থ লেনদেনের অভিযোগ এনে খালেদা জিয়াসহ চারজনের নামে ২০১১ সালের ৮ আগস্ট তেজগাঁও থানায় মামলা দায়ের করেন দুদকের সহকারী পরিচালক হারুনুর রশিদ। ২০১২ সালের ১৬ জানুয়ারি এ মামলায় আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়।
গত ১৯ মার্চ দুই মামলায় খালেদা জিয়া ও তার বড় ছেলে বিএনপি’র সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ অন্য আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ (চার্জ) গঠন করেন ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৩-এর বিচারক বাসুদেব রায়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ