ঢাকা, রোববার 23 September 2018, ৮ আশ্বিন ১৪২৫, ১২ মহররম ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

তুহিন মালিকের বিরুদ্ধে ছাত্রলীগ নেতার দুই মামলা

সংবিধান নিয়ে কটূক্তি এবং ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেওয়ার অভিযোগ এনে সংবিধান বিশেষজ্ঞ ও সুপ্রিমকোর্টের সিনিয়র আইনজীবী ড. তুহিন মালিকের বিরুদ্ধে পৃথক দুটি মামলা দায়ের করেছেন ছাত্রলীগের এক নেতা।
আজ মঙ্গলবার ঢাকার সিএমএম আদালতে মামলা দুটি করেছেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় উপকমিটির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সহ-সম্পাদক গোলাম রব্বানী।
ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট হাসিবুল হক রাষ্ট্রের অনুমতি সাপেক্ষে মামলা দুটি এজহার হিসেবে গণ্য করার জন্য শাহবাগ থানার ওসিকে নির্দেশ দিয়েছেন।
মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে, গত ৩০ নভেম্বর লন্ডনের লিলি গার্ডেন অডিটোরিয়ামে এক আলোচনা সভায় সংবিধানের বিভিন্ন অনুচ্ছেদ নিয়ে কটূক্তি ও ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত এনে বক্তব্য দেন ড. তুহিন মালিক।
মামলাগুলোতে বাদী আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন, গত ৩০ নভেম্বর ইস্ট লন্ডনের ওয়াটারলিলি গার্ডেন অডিটোরিয়ামে এক বক্তব্যে ড. তুহিন মালিক বলেছেন, ‘ তারা যেভাবে সংবিধানটাকে তাদের নির্বাচনী মেনিফেস্টো এবং দলীয় মেনিফেস্টোতে তৈরি করেছে এবং সেখানে যেভাবে নাস্তিক্যবাদিতা এবং ধর্মহীনতার বিষয় জুড়ে দেয়া হয়েছে এবং সেখানে বলা হয়েছে যে, এর তিনভাগের একভাগ অংশ প্রায় ৫২টির মতো অনুচ্ছেদ, স্পেশাল অনুচ্ছেদ, সবচেয়ে ইমপোর্ট্যান্ট অনুচ্ছেদ কিয়ামত পর্যন্ত, বাংলাদেশ যতদিন থাকবে কেউ সংশোধন করতে পারবে না। আইন করা হয়েছে, ৭ ক অনুচ্ছেদে বলে দেয়া হয়েছে, যদি কেউ এমনটা করে কিংবা করার চেষ্টা করে কিংবা সহায়তা করে, প্রত্যেকের মৃত্যুদণ্ডতুল্য রাষ্ট্রদ্রোহিতার অপরাধ হবে। মানে ফাঁসি হয়ে যাবে! তা হলে কী হবে? তা হলে কী হবে? মুজিবের কাহিনী, তার পরিবারের গানা-বাজনা, এইগুলোকে যে বাতিল করতে চাইবে তাদেরও ফাঁসি হবে। তা হলে সংবিধান পরিবর্তন, যতদিন পৃথিবী আছে হবে না। আল হামদুলিল্লাহ। আল্লাহ যা চান মানুষ সেটা হয়তো বুঝে না। একমাত্র বিকল্প রয়ে গেছে সংবিধান বাতিল! কিসের জাতির পিতা, কিসের আদর্শ, কিসের চেতনা-কিচ্ছুই থাকবে না, ইনশাল্লাহ!’
এই বক্তব্যের কারণে বাদী গোলাম রাব্বানী ক্ষুব্ধ হয়ে দুটি মামলা দায়ের করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ