ঢাকা, বৃহস্পতিবার 11 December 2014 ২৭ অগ্রহায়ন ১৪২১, ১৭ সফর ১৪৩৬ হিজরী
Online Edition

ফ্রেন্স ফ্রাই থেকে ক্যান্সারের ঝুঁকি

ছোট-বড় কমবেশী সকলের প্রিয় ক্রিসপি ফ্রেন্সফ্রাই। এটাকে বলা হয় সবচেয়ে ভালো ফ্রেন্সফ্রাই। তবে ফ্রেন্স ফ্রাইতে ক্যান্সার সৃষ্টির জন্য দায়ী রাসায়নিক পদার্থ অ্যাকরিলামাইড থাকে বলে বিশেষজ্ঞগণ অভিমত দিয়েছেন। ফলে অধিক ফ্রেন্সফ্রাই আহারে ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ে। আর এই তথ্য দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ফুড এন্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফডিএ)। বিশেষজ্ঞদের মতে ফ্রাইড পটেটোস, সিরিয়ালস, কফি, ক্র্যাকার্স, রোস্টেড ব্রেড, শুকনো ফল ইত্যাদিতে অ্যাকরিলামাইড থাকে। বিশেষ করে পটেটো বা আলু তেলে অধিক ভাজার সময় ক্ষতিকর অ্যাকরিলামাইডের মাত্রা বৃদ্ধি পায়। যে কারণে ফ্রেন্স ফ্রাই ক্যান্সারের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ। এ ব্যাপারে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও এফএও খাবারে অ্যাকরিলামাইডের উপস্থিতিতে উদ্বিগ্ন। শুধু মাত্র ফ্রাইং, রোস্টিং ও বেকিং করলে অ্যাকরিলামাইড তৈরী হয়। তবে খাবার ফুটালে বা গরম করলে এই ক্ষতিকর রাসায়নিক পদার্থ তৈরী হয় না। তবে অনেকে বলছেন, ফ্রেন্সফ্রাই নিয়ে আতংকিত হবার কারণ নেই। শুধু ক্যান্সারের ঝুঁকির জন্য নয়, ফ্রাইড ফুড কম আহার করার ক্ষেত্রে অনেক কারণ রয়েছে। এফডিএ বলছে, অত্যধিক তেলে ভাজা (ওভার কুকড) ক্রিপসি ও পোড়া ফ্রেন্স ফ্রাই আহারের পরিবর্তে সোনালী হলুদ কালারের ফ্রেন্স ফ্রাই খাওয়া উচিত।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ