ঢাকা, বৃহস্পতিবার 11 December 2014 ২৭ অগ্রহায়ন ১৪২১, ১৭ সফর ১৪৩৬ হিজরী
Online Edition

গলাব্যথা?

বৃষ্টিভেজা দিনের হালকা ঠান্ডা আবহাওয়ায় ঘুম থেকে ওঠার পর হয়তো ভাবলেন আজ গলা কাঁপিয়ে জীবনানন্দ বা সুনীলের কোনো কবিতা আবৃত্তি করে চমকে দেবেন বাড়ির সবাইকে। খানিক বাদে আবিষ্কার করলেন ব্যথা হচ্ছে গলায়। বারোটা তো বাজবেই কবিতার, এর সঙ্গে সারা দিনের কাজেও হবে অস্বস্তি। গলাব্যথার নানা দিক নিয়ে পরামর্শ দিয়েছেন জাতীয় নাক-কান-গলা ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক মো. জাহেদুল আলম।
গলাব্যথার কারণ : জাহেদুল আলম বলেন, মূলত বিভিন্ন প্রদাহের কারণে গলাব্যথা হয়ে থাকে। বিভিন্ন জীবাণুর সংক্রমণের কারণে প্রদাহ হতে পারে। টনসিল, খাদ্যনালির ওপরের অংশ, নরম তালু, এমনকি জিহ্বার পেছনের অংশে প্রদাহের কারণে হতে পারে গলাব্যথা। গলাব্যথা হলে সঙ্গে জ্বর, মাথাব্যথা অথবা শরীরে ম্যাজমেজে অনুভূতি হয়ে থাকে অনেক সময়।
ভাইরাসজনিত প্রদাহ সাধারণত ঋতু পরিবর্তনের সময় বা অতিরিক্ত গরমের সময় হয়ে থাকে। এ ছাড়া খেতে গিয়ে হঠাৎ গলায় কাঁটা বা হাড়ের কোনো অংশ লেগে গেলেও গলায় ব্যথা হতে পারে।
কিন্তু সব সময়ই খেয়াল রাখতে হবে, যদি দীর্ঘদিন ধরে গলায় একটা অস্বস্তিকর অনুভূতি হওয়ার পর হঠাৎ করে ব্যথা শুরু হয়, তাহলে এটি প্রদাহজনিত ব্যথা নয়। এমন ব্যথার পেছনে অন্য কোনো কারণ থাকতে পারে। তাই এ ক্ষেত্রে দ্রুত চিকিৎসকের শরণাপন্ন হওয়া প্রয়োজন।
গলাব্যথায় করণীয় : প্রদাহজনিত কারণে গলাব্যথা হলে লবণ ও গরম পানি দিয়ে গড়গড়া করলে উপকার পাবেন। চা পান করলেও ভালো লাগবে। তবে আগে থেকে কিডনিতে কোনো সমস্যা থাকলে চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া কোনো ব্যথানাশক ওষুধ সেবন করা উচিত নয়। আর চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া অ্যান্টিবায়োটিক জাতীয় ওষুধ গ্রহণ করা কারও জন্যই ঠিক নয়।
গলাব্যথা হলে অতিরিক্ত ঠান্ডা পানি পান করা থেকে বিরত থাকুন। এ ছাড়া যারা কোনো প্রতিষ্ঠানে শিক্ষাদান করেন অথবা যারা এমন কোনো পেশায় জড়িত, যেসব পেশার কারণে দীর্ঘ সময় উচ্চস্বরে কথা বলতে হয়, তাদের কোনো কোনো সময় গলাব্যথার সঙ্গে গলা ভেঙে যাওয়ার সমস্যাও হতে দেখা যায়। এসব ক্ষেত্রে নিজের কণ্ঠস্বরকে কিছুটা বিশ্রাম দিতে হবে এবং কথা বলতে হবে প্রশমিত স্বরে।
প্রাথমিক চিকিৎসার মাধ্যমে দুই-তিন দিনের মধ্যে গলাব্যথা ভালো না হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। আর যদি গলাব্যথার সঙ্গে ঢোঁক গিলতে কোনো অসুবিধা থাকে অথবা গলায় কাঁটা বা খাবারের কোনো অংশ আটকে থেকে গেছে বলে মনে হয় তাহলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। গলায় কোনো কিছু আটকে থাকলে তিনি তা বের করার ব্যবস্থা করবেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ