ঢাকা, সোমবার 19 November 2018, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

আন্তর্জাতিক ক্রেতারা দেশের তৈরি পোশাক খাত সম্পর্কে উচ্চ আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন

নেতৃস্থানীয় আন্তর্জাতিক ক্রেতারা দেশের তৈরি পোশাক খাতের বিষয়ে উচ্চ আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেছেন, ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ এ খাতে ৫ হাজার কোটি ডলার রফতানির লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করবে।
বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুত ও রফতানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) এক বিবৃতিতে বলা হয়, এ মাসের প্রথম দিকে তিন দিনব্যাপী এ্যাপারেল সামিটে অংশগ্রহণকারী আন্তর্জাতিক ক্রেতারা ই-মেইলের মাধ্যমে এই ইতিবাচক মনোভাব ব্যক্ত করেন। রফতানির লক্ষ্যমাত্রার রোডম্যাপ তৈরির জন্য এই সামিটের আয়োজন করা হয়েছিলো।
হার্ভার্ড ল’ স্কুলের অধ্যাপক আর্নল্ড মার্শাল জ্যাক বলেছেন, বিজিএমইএ ২০২১ সালের মধ্যে ৫ হাজার কোটি ডলারের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে পারে। তিনি বলেন, সবাই মিলে এক সঙ্গে কাজ করলে বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ায় তৈরি পোশাক খাতে শীর্ষস্থান অর্জন করবে। ই-মেইল বার্তায় তিনি তৈরি পোশাক খাতে বিজিএমইএ’র সঙ্গে কাজ করারও আগ্রহ প্রকাশ করেন।
বিজিএমইএ-এর সভাপতির কাছে পাঠানো ই-মেইলে তিনি আরো বলেন, এ্যাপারেল সামিটের মাধ্যমে তিনি বাংলাদেশ এবং এ দেশের তৈরি পোশাক খাত সম্পর্কে ব্যাপক জ্ঞান অর্জন করেছেন।
ইউরোপীয় পার্লামেন্টের সদস্য জ্যাঁ ল্যাম্বার্ড বলেছেন, বিজিএমইএ কিভাবে মান ও স্থায়িত্ব বজায় রেখে তাদের পরিকল্পনা এবং সুপারিশ বাস্তবায়ন করে তিনি তা দেখার অপেক্ষায় রয়েছেন।
ভিএফ করপোরেশনের গ্লোবাল প্রোডাক্টস সাপ্ল্ইায়ের ভাইস প্রেসিডেন্ট থমাস এ নেলসন তার ই-মেইল বার্তায় বলেন, এ্যাপারেল সামিটে যোগ দিতে পেরে তিনি খুবই আনন্দিত। তিনি বলেন, বাংলাদেশে ব্যবসা সম্প্রসারণে ভিএফ করপোরেশন তার সমর্থন ও সহায়তা অব্যাহত রাখবে।
বোস্টনের সোলান স্কুল অব ম্যানেজমেন্টের অধ্যাপক থমাস এ কোচান বলেন, বাংলাদেশে পোশাক কারখানাগুলোতে কাজের পরিবেশ উন্নয়ন ও নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে তারা উদ্যোক্তাদের সঙ্গে এক সাথে কাজ করবেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ