ঢাকা, বুধবার 21 November 2018, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

তুরস্ক মুসলমানদের 'শক্তির উৎস': খালেদ মেশাল

তুরস্ককে সব মুসলমানের জন্য ‘শক্তির উৎস’ বলে প্রশংসা করেছেন ফিলিস্তিন প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের প্রধান খালেদ মেশাল।

এছাড়া ফিলিস্তিনের প্রতিরোধ আন্দোলনে সমর্থন অব্যাহত রাখায় দেশটির প্রতি কৃতজ্ঞতাও প্রকাশ করেছেন তিনি।

আনাতোলিয়ায় তুরস্কের ক্ষমতাসীন জাস্টিস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট পার্টির (একেপি) বার্ষিক কংগ্রেসে মেশাল এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘গণতান্ত্রিক, স্থিতিশীল এবং উন্নত তুরস্ক বিশ্বের সকল মুসলিমের জন্য শক্তির উৎস।’

ফিলিস্তিন ও জেরুজালেমের দখলমুক্তির আশাবাদ জানিয়ে হামাস প্রধান বলেন, ‘শক্তিশালী তুরস্ক মানে শক্তিশালী জেরুজালেম, শক্তিশালী ফিলিস্তিন।’

হলভর্তি একেপি নেতাকর্মীরা এ সময় তুরস্ক এবং ফিলিস্তিনের পতাকা নেড়ে ‘আল্লাহু আকবার (আল্লাহ মহান)’ স্লোগান দিতে থাকেন। এ অবস্থায় মেশালকে একাধিকবার তার বক্তব্য থামাতে হয়।

এসময় তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী আহমেদ দাভুতোগলু তার ভাষণে বলেন, চাঁদ-তারা খচিত লাল তুর্কি পতাকা ‘বিশ্বের নিরীহ-নিপীড়িত জনগণের প্রতীক’।

তিনি বলেন, ‘আল্লাহ সাক্ষী...আমরা এই পতাকাকে বিশ্বের নিপীড়িত মানুষের মুক্তির প্রতীকে পরিণত করবো। ফিলিস্তিন, মুক্ত সিরিয়া এবং বিশ্বের সকল নিরীহ-নিপীড়িত মানুষের পতাকার সঙ্গে এই পতাকা পাশাপাশি উড়বে।’

প্রসঙ্গত, তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়িইপ এরদোগান ফিলিস্তিনে ইসরাইলি দখলারিত্ব, বর্ণবাদ এবং সামরিক অভিযানের কড়া সমালোচক। জনপ্রিয় এই নেতাকে ফিলিস্তিনের দখলদার-বিরোধী আন্দোলনের অন্যতম সমর্থক মনে করা হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ