ঢাকা, মঙ্গলবার 20 November 2018, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

প্যারিসে পত্রিকা অফিসে গুলি, নিহত ১২

অনলাইন ডেস্ক : আই এস নেতার কার্টুন প্রকাশের জের ধরে জঙ্গিরা ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে শার্লি এবদু নামের একটি বিদ্রুপ ম্যাগাজিনের কার্যালয়ে ঢুকে গুলি চালিয়ে ১২ জনকে হত্যা করেছে।

 নিহতদের মধ্যে দুইজন পুলিশ সদস্য ছাড়াও রয়েছেন ম্যাগাজিনটির ৪ জন নামকরা কার্টুনিস্টসহ সম্পাদকও। ম্যাগানিজটির দৈনিক সম্পাদকীয় বৈঠক চলার সময় এ হামলায় অন্তত ৪ জন গুরুতর আহত হয়েছে।

বিবিসি’র প্রতিবেদনে বলা হয়, বুধবার স্থানীয় সময় বুধবার দুপুরের আগে কালো হুডে মুখ ঢাকা অন্তত দুই বন্দুকধারী শার্লি এবদুর কার্যালয়ে ঢোকে এবং অ্যাসল্ট রাইফেল দিয়ে গুলি চালায়।

সেখান থেকে বেরিয়ে গাড়ি নিয়ে পালানোর সময় রাস্তায় পুলিশের সঙ্গেও তাদের গোলাগুলি হয়।

ঘটনার একজন প্রতক্ষদর্শী ফ্রান্সের একটি টেলিভিশনকে বলেন, “দুজন কালো হুড পরা লোক কালাশনিকভ রাইফেল হাতে ওই ভবনে ঢোকে। কয়েক মিনিট পর আমরা গুলির শব্দ পাই। এর পরপরই তারা বেরিয়ে যায়।”

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওলাদ বলেছেন, অভাবনীয় এই বর্বরতার পেছনে যে জঙ্গিরা রয়েছে, সে বিষয়ে তার কোনো সন্দেহ নেই।

শার্লি এবদু তাদের সর্বশেষ টুইটে মধ্যপ্রাচ্যের জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস) এর নেতা আবু বকর আল-বাগদাদীর একটি কার্টুন প্রকাশ করে। ম্যাগাজিনটির সম্পাদক আগেই প্রাণনাশের হুমকি পেয়েছিলেন এবং পুলিশ প্রহরায় ছিলেন বলে জানিয়েছে বিবিসি।

বন্দুকধারীরা ‘আল্লাহ হু আকবর’ স্লোগান দিচ্ছিল এবং “আমরা নবী মুহম্মদ (সাঃ) কে ব্যাঙ্গ করার প্রতিশোধ নিয়েছি,” এমন কথা বলতে শোনা গেছে বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।

হামলাকারীদের ধরতে প্যারিসে বড় ধরনের অভিযান শুরু করেছে পুলিশ। প্রাথমিক খবরে বন্দুকধারীর সংখ্যা দুইজন বলা হলেও পরে ফ্রান্সের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, নিরাপত্তা বাহিনী তিন হামলাকারীকে খুঁজছে। প্যারিসে সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

সমসাময়িক বিভিন্ন বিষয়ে বিদ্রুপাত্মক কার্টুন ও প্রতিবেদন প্রকাশ করে সাপ্তাহিক এই সাময়িকী আগেও বিতর্কে জড়িয়েছে। এরকমই একটি কার্টুন প্রকাশের পর ২০১১ সালে ওই কার্যালয়ে আগুনে বোমা ছোড়া হয়।

বুধবারের ঘটনার পর প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওলাদ ঘটনাস্থলে ছুটে যান। সেখানে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, “আমরা মুক্ত মতের দেশ বলেই আমাদের ওপর এই হামলা।”

যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন এক টুইটে এ হামলার নিন্দা জানিয়ে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ফ্রান্সের জনগণের পাশে থাকার অঙ্গীকার করেছেন।

আ.হু/সংগ্রাম

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ