ঢাকা, বুধবার 16 October 2019, ১ কার্তিক ১৪২৬, ১৬ সফর ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

বগুড়ায় জামায়াত-শিবিরের মিছিল পিকেটিং, পুলিশের গুলি,আহত ১, আটক ৩

বগুড়ার শেরপুরে হরতালের পিকেটিং করার সময় পুলিশের গুলিতে রানা আহম্মেদ নামে এক শিবির কর্মী আহত হয়েছে। তিনি কোমরে গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। আহত অবস্থায় তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। পুলিশ এসময় গুলিবিদ্ধ রানাসহ ৩ শিবির কর্মীকে আটক করেছে।

প্রত্যক্ষদর্শিরা জানায়, রোববার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে হরতালের সমর্থনে বগুড়ার শেরপুর উপজেলার হামছায়াপুরে মহাসড়ক অবরোধ করে ছাত্রশিবির। এসময় পুলিশ বাধা দিলে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়। এসময় তারা ৩-৪টি ককটেলের বিস্ফোরন ঘটায়। এতে পিছু হটতে বাধ্য হয় পুলিশ। কিছুক্ষণ পর অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে রাবার বুলেট ছুড়ে শিবির কর্মীদের ছত্রভঙ্গ করতে চাইলে দু’পক্ষের মধ্যে আবারও ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। রাবার বুলেটের আঘাতে শিবির কর্মী রানা আহম্মেদ আহত হলে পুলিশ তাকে আটক করে। রানার কোমরে গুলিবিদ্ধ হয়েছে। তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এসময় আরও ২ শিবির কর্মীকে আটক করে পুলিশ।

শেরপুর থানার ওসি আলী আহম্মেদ হাশমী জানান, শিবির কর্মীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ককটেল নিক্ষেপ করলে পুলিশ ৭ রাউন্ড রাবার বুলেট নিক্ষেপ করেছে। ঘটনাস্থলে থেকে ৩ শিবির কর্মীকে আটক করা হয়েছে।

এদিকে, রোববার সকালে বগুড়া শহরের কলোনী ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের সামনে হরতালের সমর্থনে জামায়াত-শিবির কর্মীরা সড়ক অবরোধ করে। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছার পর পুলিশকে লক্ষ্য করে ২-৩টি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। একপর্যায়ে পুলিশ পিছু হটলে জামায়াত-শিবির কর্মীরা এলাকা ছেড়ে চলে যায়।

এছাড়া শহরের নামাজগড়, সাবগ্রামসহ বিভিন্ন এলাকায় হরতালের সমর্থনে জামায়াত-শিবির কর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল করেছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ