ঢাকা, বুধবার 23 October 2019, ৮ কার্তিক ১৪২৬, ২৩ সফর ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

‘মান্নার গ্রেফতার অস্বীকার গভীর ষড়যন্ত্র’

অনলাইন নিউজ ডেস্ক : নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্নাকে গ্রেফতারে পর অস্বীকার করার মধ্যে গভীর ষড়যন্ত্র রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ইফতেখার আহমেদ বাবু। নতুন বার্তা ডটকম।

তিনি সরকারের কাছে মান্নার বিরুদ্ধে মিথ্যা প্রচারণা বন্ধ ও তার আটকের কারণ জানতে চেয়েছেন। একই সঙ্গে বৃহত্তর স্বার্থে তার মুক্তি দাবী করেছেন।

মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবে নাগরিক ঐক্য আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন সংগঠনটির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ইফতেখার আহমেদ বাবু।

ইফতেখার  বলেন, “দেশের চলমান পরিস্থিতিতে রাজনৈতিক প্রয়োজনে সবার সঙ্গে কথা বলতে চায়  নাগরিক ঐক্য। রাজনীতির প্রয়োজনে সবার সঙ্গে কথা বলা দরকার। এর সঙ্গে এক এগারোর বা অন্য কোনো ষড়যন্ত্রের অবিষ্কার দুরভিসন্ধিমূলক।”

সেনাবাহিনীর কোন কোন কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলার প্রস্তাব নিয়েও পরিস্থিতি ঘোলা করা হচ্ছে বলে দাবী করেন নাগরিক ঐক্যর এই নেতা।

ইফতেখার আহমেদ বলেন, চলমান রাজনৈতিক সংকট উত্তরণের জন্য আমরা জাতীয় সংলাপের মাধ্যমে শান্তির প্রস্তাব দিয়েছি। এ দাবিতে বিভিন্ন ধরনের কর্মসূচি পালন করছি। এর মধ্যে দুটি কথোপকথন নিয়ে নতুন পরিস্থিতি সৃষ্টি করা হয়েছে।

তিনি বলেন, গণতন্ত্রের দাবিতে আন্দোলনে আমরা সব সময়ই তৎপর আছি। কখনো সন্ত্রাস-সহিংসতাকে সমর্থন করি না। এ থেকে বেরিয়ে আসার জন্য ব্যাপক জনগণকে সংযুক্ত করার চেষ্টাও করছি আমরা।

ইফতেখার আরো বলেন, “দেশে ছাত্ররা সবসময়ই আন্দোলন সংগ্রামে অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে। দেশের বর্তমান অবস্থায় ছাত্র আন্দোলন প্রতিষ্ঠিত ও বিস্তৃত করতেই মান্না কথা বলছিলেন। কিন্তু  তার বক্তব্যটি বিকৃতভাবে ব্যাখ্যা করে তার বিরুদ্ধে লাশ চাওয়ার অভিযোগ তোলা হয়েছে।”

সংবাদ সম্মেলনে মান্নার অবর্তমানে সংলাপের জন্য কাজ চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি।

সোমবার দিনগত রাত সাড়ে তিনটার দিকে বনানীর একটি বাসা থেকে সাদা পোশাকের কয়েকজন পুলিশ মাহদুর রমান মান্নাকে আটক করে নিয়ে গেছে বলে নিশ্চিত করেছেন তার স্ত্রী ডা. মেহের নিগার।

তাকে আটক বা গ্রেফতার করা হয়নি বলে ঢাকা মহানগর পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ