ঢাকা, বুধবার 23 October 2019, ৮ কার্তিক ১৪২৬, ২৩ সফর ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

স্বেচ্ছাসেবক দল নেতার বাড়িতে পুলিশ-আ.লীগের যৌথ ভাঙচুর!

অনলাইন ডেস্ক : বগুড়া সদর উপজেলার গোকুল ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতিকে না পেয়ে তার ঘরের আসবাবপত্র ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। আইন-শৃংখলা বাহিনীর সদস্যদের উপস্থিতিতে সরকারি দলের লোকেরা এসব করেছে বলে অভিযোগ করেছেন স্বেচ্ছাসেবক দল নেতার স্ত্রী। তার অভিযোগ পুলিশও ভাঙচুরে সহযোগিতা করেছে।

তবে পুলিশ অভিযোগ অস্বীকার করে জানিয়েছে, তারা এ ধরনের কোন অভিযানে যায়নি।

গোকুল ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি মিজানুর রহমান মিজান এর স্ত্রী নিশা আক্তার ও তার পরিবারের সদস্যরা জানান, শনিবার দিবাগত রাত আনুমানিক একটার দিকে বগুড়া সদরের গোকুল উত্তরপাড়ায় তাদের ভাড়া বাড়িতে আইন-শৃংখলা বাহিনীর একদল সদস্য ও মুখোশধারী কিছু ব্যক্তি প্রবেশ করে। সে সময় মিজানুরের ঘরের দরজা বাইরে থেকে তালা লাগানো ছিল। এ অবস্থায় আইন-শৃংখলা বাহিনীর সদস্যদের সামনে মুখোশধারীরা শাবল দিয়ে তালা ভেঙ্গে ঘরে প্রবেশ করে। এরপর টিভি, ফ্রিজ ও অন্যান্য আসবাবপত্র ভাঙচুর করে।

মিজানুরের স্ত্রী বলেন, ২০ দলীয় জোটের চলমান আন্দোলনে গোকুল এলাকায় তার স্বামী আন্দোলন পরিচালনায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করায় এর আগেও বেশ কয়েকবার আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা তার বাড়িতে হানা দিয়েছে। এসময় তাকে না পেয়ে বিভিন্ন হুমকি ধামকি ও পরিবারের সদস্যদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেছে।

এ বিষয়ে বগুড়া সদর থানার ওসি আবুল বাসার জানান, ‘মিজানুরের বাড়িঘর ভাঙচুরের ঘটনা আমাদের জানা নেই এবং আমাদের কোন পুলিশ সদস্য মিজানুরের বাড়িতে যায়নি।’

এদিকে স্বেচ্ছাসবক দল নেতা মিজানুরের বাড়িতে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় বগুড়া সদর থানা বিএনপি, গোকুল ইউনিয়ন বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল ও স্বেচ্ছাসেবক দল সহ সকল অঙ্গসংগঠন তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ