ঢাকা, মঙ্গলবার 25 September 2018, ১০ আশ্বিন ১৪২৫, ১৪ মহররম ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

নিয়ম ভেঙে ট্রফি দিলেন শ্রীনিবাসন

স্পোর্টস ডেস্ক :
রীতি অনুযায়ী ক্রিকেট বিশ্বকাপের ফাইনালে বিজয়ী দলের অধিনায়কের হাতে আইসিসির সভাপতিরই ট্রফি তুলে  দেওয়ার কথা থাকলেও সেই নিয়ম ভেঙে  ট্রফি দিলেন চেয়ারম্যান শ্রীনিবাসন।

এর আগে শনিবার আইসিসির অনানুষ্ঠানিক এক সভায় বাংলাদেশের পরিকল্পনা মন্ত্রী ও আইসিসি সভাপতি কামালের ট্রফি দেওয়ার অধিকার কেড়ে নেওয়া হয়। এমনকি সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ করলে সভায় তোপের মুখে পড়েন ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা আইসিসির এই সভাপতি।

কলকাতার টেলিগ্রাফ পত্রিকার তথ্যানুযায়ী, ওই সভায় কামালকে কোণঠাসা করে শ্রীনিবাসনকে ট্রফি তুলে দেওয়ার দায়িত্ব দেওয়া হয়। কামালের প্রতিবাদেও কোনো কাজ হয়নি।

পত্রিকাটি জানায়, ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থার গঠনতন্ত্র লঙ্ঘন করে ট্রফিতে হাত ছোঁয়াচ্ছেন আইপিএল কেলেঙ্কারিতে নাম আসায় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) সভাপতি পদ থেকে সরে যেতে বাধ্য হওয়া শ্রীনিবাসন।

আইসিসির গঠনতন্ত্র অনুযায়ী সভাপতিরই বিশ্ব ক্রিকেটের সবচেয়ে মর্যাদার এই টুর্নামেন্টের ট্রফি তুলে দেওয়ার কথা।

জগমোহন ডালমিয়ার মেয়াদ (১৯৯৭-২০০০) থেকে বিজয়ী অধিনায়কের হাতে আইসিসি সভাপতির ট্রফি তুলে দেওয়ার রীতি চালু হয়।

তবে আইসিসি 'তিন মোড়ল' -এর কব্জায় চলে যাওয়ার পর গঠনতন্ত্র পরিবর্তন করে চেয়ারম্যান পদ তৈরি করে তাকেই সর্বময় ক্ষমতা দেওয়া হয়; সভাপতির পদ হয়ে যায় আলঙ্কারিক।

কলকাতার পত্রিকাটি কোনো নির্দিষ্ট সূত্র উল্লেখ না করে জানায়, শনিবার আইসিসির অনানুষ্ঠানিক সভায় কামালকে কোণঠাসা করে শ্রীনিবাসনকে ট্রফি তুলে দেওয়ার দায়িত্ব দেওয়া হয়। কামালের প্রতিবাদেও কোনো কাজ হয়নি।

বাংলাদেশ-ভারত মেলবোর্নের কোয়ার্টার-ফাইনালে 'বিতর্কিত' আম্পায়ারিংয়ের পর আইসিসির কড়া সমালোচনা করেন কামাল। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল এখন ইন্ডিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলেরই নামান্তর বলে ক্ষোভ প্রকাশ করে প্রয়োজনে পদত্যাগ করার কথাও জানান তিনি।

আইসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ডেভিড রিচার্ডসন পরে এক বিবৃতিতে মুস্তফা কামালের মন্তব্যকে 'দুর্ভাগ্যজনক' বলে আখ্যা দেন। আইসিসির ওই অনানুষ্ঠানিক সভায় বাংলাদেশের পরিকল্পনা মন্ত্রী কামালকে তোপের মুখে পড়তে হয় বলে কলকাতার ইংরেজি দৈনিকটি জানায়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ