ঢাকা, শুক্রবার 16 November 2018, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

বোস্টন বোমা হামলার ঘটনায় অভিযুক্ত তরুণের মৃত্যুদণ্ড

যুক্তরাষ্ট্রের বোস্টনে ম্যারাথনে বোমা হামলার ঘটনায় অভিযুক্ত তরুণ যোখার সারনায়েভকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের একটি আদালত।

প্রাণঘাতী ইনজেকশন দিয়ে এই দণ্ড কার্যকর করা হবে।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ড না মৃত্যুদণ্ড দেয়া হবে, সেটি সিদ্ধান্তে আসতে জুরিদের সময় লেগেছে প্রায় ১৪ ঘণ্টা।

জোখার সারনায়েভ এবং তার ভাই তামেরলান সারনায়েভ মিলে ২০১৩ সালের এপ্রিল মাসে বোস্টন ম্যারাথন চলার সময় প্রেশার কুকার বোমা হামলা চালান। সে সময় তিনজন নিহত হয় আর অন্তত হয়েছিল আরো ২৬০ জন।
শিল্পীর চোখে মি. সারনায়েভের বিচারের দৃশ্য

বোমা হামলার পাশাপাশি তার বিরুদ্ধে পুলিশ হত্যা এবং গাড়ী ছিনতাই করে গ্রেফতার এড়ানোর জন্য পালিয়ে যাবার অভিযোগও আনা হয়।

তামেরলান পরে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হন। আর যোখার সারনায়েভকে গ্রেপ্তারের পর বিচারের প্রক্রিয়া শুরু করা হয়।

সারনায়েভ ভ্রাতৃদ্বয় ইসলামের উগ্র ভাবধারায় উজ্জীবিত ছিল বলে বলা হয়।

প্রায় দুই বছর পরের আইনি প্রক্রিয়া শেষে এই রায় দেয়ার সিদ্ধান্ত এলো।
দুই ভাই যোখার সারনায়েভ ও তামেরলান সারনায়েভ

যুক্তরাষ্ট্রের একজন কৌসুলি কারমেন ওর্টিজ বলেছেন, সকল মুসলিমের পক্ষ থেকে সে এই কাজ করেছে বলে দাবী করেছে। কিন্তু এই নিয়ে কোনো ভুল বোঝার সুযোগ নেই, কারণ এটি কোনো ধর্মীয় অপরাধ নয় এবং অবশ্যই এটি মুসলিম মতের প্রতিফলনও নয়। যুক্তরাষ্ট্রকে আতঙ্কিত করার উদ্দেশ্যই এই হামলা করা হয়েছিল।

মি. সারনায়েভের আইনজীবী আদালতে আপীল করবেন বলে জানিয়েছেন। সেক্ষেত্রে আপীলের মীমাংসা শেষে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করতে হয়তো আরো সময় লেগে যেতে পারে।

চেচেন বংশোদ্ভূত সারনায়েভ ভ্রাতৃদ্বয় ২০০২ সালে পরিবারের সঙ্গে অ্যামেরিকায় এসেছিল।
বিবিসি

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ