ঢাকা, বুধবার 22 May 2019, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৬ রমযান ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

পাকিস্তানে দাবদাহে ১৩৬ জনের মৃত্যু

পাকিস্তানের সিন্ধু প্রদেশে তীব্র দাবদাহের কবলে পড়ে নিহত হয়েছে ১৩৬ জন। কয়েক দিনের টানা দাবদাহে এসব প্রাণহানি ঘটেছে।

সিন্ধুর স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, নিহতদের মধ্যে অধিকাংশ প্রাদেশিক রাজধানী করাচির বাসিন্দা। প্রায় চার দিন করাচির তাপমাত্রা ৪৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের (১১৩ ডিগ্রি ফারেনহাইট) কাছাকাছি অবস্থান করছে।

প্রচণ্ড গরমে বিদ্যুতের চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় এবং তা সরবরাহ করতে না পারায় ভয়ানক লোডশেডিং তৈরি হয়। কোনো কোনো এলাকায় দীর্ঘসময় ধরে বিদ্যুৎ না থাকায় শ্বাসকষ্টের সমস্যায় পড়ে লোকালয়ের মানুষ।

করাচির জিন্নাহ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের প্রধান ডা. সিমি জামালি বলেন, দাবদাহে নিহতদের মধ্যে অধিকাংশ ব্যক্তি বয়স্ক। হিট-স্ট্রোকে আক্রান্ত ব্যক্তিদের উচ্চমাত্রায় জ্বর দেখা দিচ্ছে। এ ছাড়া সজ্ঞা হারানো, ডায়রিয়া এবং খিচুনির সমস্যাও দেখা যাচ্ছে।

প্রাদেশিক স্বাস্থ্য সচিব সাইদ মাংনেজো বলেছেন, শনিবার থেকে বয়ে যাওয়া দাবদাহে শুধু করাচিতে নিহত হয়েছে ১১৪ জন। সিন্ধুর অন্য তিন জেলায় নিহত হয়েছে আটজন।

পাকিস্তানের আবহওয়া অফিস জানিয়েছে, সোমবারও দাবদাহ বয়ে যাবে। তবে মঙ্গলবার থেকে তাপমাত্রা কিছুটা কমবে।

১৯৭৯ সালে করাচিতে রেকর্ডকৃত সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস (১১৭ ডিগ্রি ফারেনহাইট)।

গত মাসে প্রতিবেশী ভারতে তীব্র দাবদাহে নিহত হয় ১ হাজার ৭০০ জনের বেশি ব্যক্তি। সূত্র : ডন/বিবিসি/টাইমস অব ইন্ডিয়া

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ