ঢাকা, বুধবার 26 September 2018, ১১ আশ্বিন ১৪২৫, ১৫ মহররম ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

৫০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের রফতানির টার্গেটে রোডম্যাপ প্রস্তুত করেছে বিজিএমইএ

স্টাফ রিপোর্টার: ৫০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের তৈরি পোশাক রফতানির টার্গেট পূরণে খসড়া রোডম্যাপ সরকারের কাছে উপস্থাপন করবে বাংলাদেশ গার্মেন্ট ম্যানুফ্যাকচারার্স এন্ড এক্সপোর্টার্স এসোসিয়েশন (বিজিএমইএ)। আগামী ৬ আগস্ট চট্টগ্রামে শুরু হতে যাওয়া বাংলাদেশ এপারেল এন্ড সেফটি এক্সপো, ২০১৫-তে এ রোডম্যাপ উপস্থাপন করা হবে।
গতকাল রোববার রাজধানীর কাওরান বাজারে এক্সপো ২০১৫ উপলক্ষে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে এ কথা জানান বিজিএমইএ প্রেসিডেন্ট আতিকুল ইসলাম। এতে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- বিজিএমইএ জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি নাসির উদ্দিন, সহ-সভাপতি এসএ মান্নান কচি, শহীদুল্লাহ আজিম।
আতিকুল ইসলাম বলেন, গত বছরের ডিসেম্বরে ঢাকা এপারেল সামিট চলাকালে ৫০ বিলিয়ন ডলারের রফতানি টার্গেট পূরণে সরকার, বেসরকারি খাত, দাতা সংস্থা, ব্র্যান্ড, শ্রমিক সংগঠনগুলোর কাছে একটি টেকসই পরিকল্পনা গ্রহণের বিষয়ে কিছু পরামর্শ এসেছিল। পরবর্তীতে আমরা অস্ট্রেলিয়ার আরএমআইটির সহায়তায় পরামর্শগুলো বিশ্লেষণ করে একটই খসড়া রোডম্যাপ তৈরি করেছি। চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিতব্য এক্সপোতে এ খসড়া রোডম্যাপ সরকারের কাছে উপস্থাপন করবো।
এ রোডম্যাপে ৫০ বিলিয়ন ডলারের রফতানি টার্গেট পূরণে যেসব বাধা বিপত্তি রয়েছে সেগুলো থেকে বেরিয়ে আসার ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা থাকবে বলেও জানান তিনি।তার মতে, সরকারের সঙ্গে রফতানির টার্গেট পূরণ নিয়ে যে অসামঞ্জস্যতা আছে তা দূর হয়ে যাবে।
গত বছর রফতানি টার্গেট পূরণ না হওয়ার জন্য রাজনৈতিক অস্থিরতাকে দায়ী করেন তিনি। তিনি বলেন, এতে দেশ ইমেজ সঙ্কটে পড়েছে। যে কারণে অনেক বায়ার অর্ডার বাতিল করেছে, নতুন অর্ডার আসা বন্ধ হয়েছে।
তিনি জানান, আগামী ৬ থেকে ৮ আগস্ট চট্টগ্রামের র‌্যাডিসন ব্লু হোটেলে বাংলাদেশ এপারেল এন্ড সেফটি এক্সপো চলবে। এতে দেশি-বিদেশি ৭৩টি স্টল থাকছে। এর মধ্যে ২৫টি অগ্নি নিরাপত্তা সামগ্রী সংশ্লিষ্ট স্টল। ৩ দিন ধরে অনুষ্টিতব্য এ মেলায় পোশাক খাতে বিনিয়োগ ও শ্রম নিরাপত্তা বাড়ানোর বিষয়ে চারটি সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে।#####

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ