ঢাকা, শনিবার 17 November 2018, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

গাম্বিয়াকে ‘ইসলামি প্রজাতন্ত্র’ ঘোষণা

করেছেন প্রেসিডেন্ট ইয়াহিয়া জাম্মে। তিনি বলেছেন, মুসলিম অধ্যুষিত দেশ গাম্বিয়ার জনগণের ‘ধর্মীয় পরিচয় ও মূল্যবোধ’ সমুন্নত রাখতে এ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এ ছাড়া, এর ফলে তার দেশে সাবেক ঔপনিবেশিক শাসনামলের সব স্মৃতিচিহ্ণ মুছে যাবে বলেও উল্লেখ করেছেন তিনি।

এক টেলিভিশন ভাষণে প্রেসিডেন্ট জাম্মে একই সঙ্গে বলেছেন, দেশে ইসলামি প্রজাতন্ত্র ঘোষণা করা হলেও নতুন করে কোনো পোশাক আইন ঘোষণা করা হবে না এবং অমুসলিমরা স্বাধীনভাবে তাদের ধর্মকর্ম পালন করতে পারবেন।

গাম্বিয়ার মোট জনসংখ্যার শতকরা ৯০ ভাগেরও বেশি মুসলমান। সাবেক ব্রিটিশ উপনিবেশের অন্তর্ভূক্ত দেশটির বৈদেশিক মুদ্রা আয়ের প্রধান উৎস পর্যটন খাত। সাম্প্রতিক সময়ে পশ্চিমা দেশগুলোর সঙ্গে গাম্বিয়ার সম্পর্কে তিক্ততা সৃষ্টি হয়েছে। দেশটির মানবাধিকার পরিস্থিতি ভালো না থাকার অজুহাতে গত বছর ইউরোপীয় ইউনিয়ন সাময়িকভাবে গাম্বিয়ায় অর্থসাহায্য বন্ধ করে দিয়েছে। ইয়াহিয়া জাম্মে গত ২১ বছর ধরে দেশটির প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করছেন।

টেলিভিশন ভাষণে তিনি আরো বলেছেন, দেশের বেশিরভাগ মানুষ মুসলমান হওয়া সত্ত্বেও গাম্বিয়া উপনিবেশবাদী আইনে চলতে পারে না। তিনি ২০১৩ সালে কমনওয়েলথ থেকে তার দেশকে বের করে আনেন একথা বলে যে, ওই সংস্থা নব্য-উপনিবেশাবাদী সংস্থায় পরিণত হয়েছে।
-শীর্ষনিউজ ডট কম

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ