ঢাকা, মঙ্গলবার 15 October 2019, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬, ১৫ সফর ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

ব্রেক্সিট: টিভি বিতর্কে মুখোমুখি ‘লিভ’ আর ‘রিমেইন’ পক্ষ

‘গ্রেট ডিবেটে’ মুখোমুখি ‘লিভ’ ও ‘রিমেইন’ পক্ষের নেতারা

অনলাইন ডেস্ক: ব্রিটেন ইউরোপের সাথে থাকবে কি থাকবে না, তা নিয়ে আগামীকালের (২৩ শে জুন, বৃহস্পতিবার) গণভোটকে সামনে রেখে ইতিহাসের বৃহত্তম সরাসরি টিভি বিতর্কে মুখোমুখি হয়েছিলেন দুই পক্ষের সামনের সারির নেতারা।

ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে ই ঘন্টা ব্যাপী এই ‘গ্রেট ডিবেট’ অনুষ্ঠিত হয়, যার দর্শক ছিল ছয় হাজারের মত মানুষ।

বিবিসিতে সরাসরি সম্প্রচারিত এই বিতর্ক সভায় অভিবাসন, অর্থনীতি ও সার্বভৌমত্ব নিয়ে তর্কযুদ্ধ করেন উভয় পক্ষের নেতারা।

যারা ইউরোপ থেকে বেরিয়ে যেতে চান সেই ‘লিভ’ পক্ষে ছিলেন লন্ডনের সাবেক মেয়র বরিস জনসন।

অন্য অংশ, অর্থাত্ ‘রিমেইন’ পক্ষে ছিলেন স্কটিশ টোরি নেত্রী রুথ ডেভিডসন।

মিস ডেভিডসন ‘লিভ’কে বর্ণনা করছিলেন ‘মিথ্যা’র পক্ষ হিসেবে।

অন্যদিকে মি. জনসনের বর্ননায় ‘রিমেইন’ পক্ষ ‘কথা দিয়ে দেশকে ছোট করছে’।

সমাপনী বক্তব্যে মি. জনসন বলেন, ব্রিটেনবাসী যদি ‘লিভ’কে ভোট দেয় তাহলে ‘বৃহস্পতিবার হতে পারে আমাদের দেশের স্বাধীনতা দিবস’।

এসময় তার সমর্থকেরা উঠে দাঁড়িয়ে তাকে জয়ধ্বনি দেয়।

আর ‘রিমেইন’ পক্ষের হয়ে সমাপনী বক্তব্যে মিস ডেভিডসন সমর্থকদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘শতভাগ নিশ্চিত হতে হবে। নইলে আমাদের আর শুক্রবার সকালে ফেরার সুযোগ থাকবে না’।

এই বিতর্কটি ছিল মূলত ইইউ গণভোট নিয়ে প্রচারণায় ভোটারদের কাছে নিজেদের অবস্থান তুলে ধরবার শেষ সুযোগ।

বিতর্কে বরিস জনসন ও লন্ডনের মেয়র সাদিক খান যখন মুখোমুখি হন, তখন বেশ উত্তাপ তৈরি হয়।

মি. খান ‘রিমেইন’ পক্ষের একজন নেতা।

ডি.স/আ.হু

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ