ঢাকা, মঙ্গলবার 25 September 2018, ১০ আশ্বিন ১৪২৫, ১৪ মহররম ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

টাইব্রেকারে ইতালিকে হারিয়ে সেমিতে জার্মানি

অনলাইন ডেস্ক: ইতালিকে হারাতে টাইব্রেকার পর্যন্ত যেতে হয়েছে ইউরোর শিরোপা জয়ে অন্যতম ফেভারিট জার্মানিকে। তবে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন দলটির কোচ ইওয়াখিম লুভের দাবি, তারাই ভালো খেলেছে এবং জয় তাদের প্রাপ্যই ছিল।

ফ্রান্সের বোর্দোতে গত শনিবার নির্ধারিত ৯০ মিনিটের খেলা ১-১ গোলে সমতায় থাকার পর অতিরিক্ত সময়েও কোনো দলই আর গোল পায়নি। উত্তেজনা ছড়ানো টাইব্রেকারে ইতালিকে ৬-৫ ব্যবধানে হারিয়ে সেমি-ফাইনালে উঠে জার্মানি।

জার্মানিকে ২০১৪ বিশ্বকাপ জেতানো লুভ ম্যাচ শেষে বলেন, “দুই দলের দিক থেকেই খুব উচ্চ পর্যায়ের ট্যাকটিক্যাল একটি ম্যাচ ছিল এটা। আমি মনে করি, আমরাই ভালো খেলেছি, ইতালির শক্তি ছিল মাঝমাঠে এবং তাদের সামলাতে আমরা ভালো খেলেছি। তারা গোল করতে পারবে বলে মনে করিনি আমি কিন্তু পেনাল্টিটি ছিল দুর্ভাগ্যজনক।”

“শেষে এটা অবশ্যই ভাগ্য ছিল; কিন্তু ম্যাচজুড়ে আমরাই সেরা দল ছিলাম, তাদের চেয়ে দুই বা তিনটি সুযোগ বেশি পেয়েছি আমরা। (মারিও) গোমেজ যখন (জানলুইজি) বুফ্ফনের সামনে একা ছিল, তখনই আমরা ম্যাচটি জিততে পারতাম। কিন্তু বুফ্ফন খুব ভালো সেভ করেছে।”

টাইব্রেকারে গোল করতে ব্যর্থ হন জার্মানির টমাস মুলার, মেসুত ওজিল ও বাস্টিয়ান শোয়াইনস্টাইগার। অন্য দিকে তাদের গোলরক্ষক মানুয়েল নয়ার রুখে দেন ইতালির লিওনার্দো বোনুচ্চি ও মাত্তেও দারমেইনের শট। 

লুভ জানান, টাইব্রেকারে কে শট নেবে আর কখন নেবে সেই বিষয়ে ভাবতে খুব বেশি সময় পাননি। 

“আমার কোনো প্রভাব ছিল না। প্রথম পাঁচটির সিদ্ধান্ত খুব দ্রুত নেওয়া হয়েছে এবং এর পর আপনাকে খেলোয়াড়দের মানসিক অবস্থার উপর নির্ভর করে তাদের বেছে নিতে দিতে হবে।”

“পেনাল্টি নেওয়ার জন্য আমাদের কয়েকজন ভালো খেলোয়াড় আছে, যদিও আমরা কয়েকটি শট থেকে গোল করতে ব্যর্থ হয়েছি।”

তবে তরুণ দুই খেলোয়াড় ইয়োনাস হেক্টর ও জসুয়া কিমিচ ঠাণ্ডা মাথায় তাদের শট থেকে গোল করতে পারায় খুশি লুভ।

“যেটা ইতিবাচক ছিল তা হলো তরুণ হেক্টর ও কিমিচ এগিয়ে এসেছে এবং এ রকম একটি আবহেও তারা নিজেদের শান্ত রেখেছিল।”

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ