ঢাকা, মঙ্গলবার 22 October 2019, ৭ কার্তিক ১৪২৬, ২২ সফর ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

প্রতিপক্ষকে জঙ্গি বানাতে গিয়ে ফাঁসলেন ৪ যুবক

অনলাইন ডেস্ক: লক্ষ্মীপুরে শত্রুতার জের ধরে প্রতিপক্ষের দোকানে বোমা ও উগ্র মতবাদের বই রেখে ফাঁসাতে গিয়ে চার যুবক নিজেরাই র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‍্যাব) হাতে গ্রেপ্তার হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন চন্দ্রগঞ্জ থানার কালিদাসেরবাগ এলাকার বাসিন্দা শরিফুল আজম রিপন (২৩), একই এলাকার ইসমাইল হোসেন রুবেল (১৯), তারেক রহমান (১৯) ও দক্ষিণ মান্দারি গ্রামের মো. শহীদ (২৫)।

শুক্রবার রাতে স্কোয়াড কমান্ডার সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) কল্লোল কুমার দত্তের নেতৃত্বে লক্ষ্মীপুরের চন্দ্রগঞ্জ থানার মান্দারির চতালিয়া বাজার থেকে চার যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় উদ্ধার করা হয় পাঁচটি পেট্রলবোমা, পাঁচটি চকলেট বোমা ও ১১টি উগ্র মতাদর্শের বই।

শনিবার বিকেল পৌনে ৫টার দিকে র‌্যাব-১১ সিপিসি-৩ লক্ষ্মীপুর ক্যাম্পের কোম্পানি অধিনায়ক মেজর এ এম আশরাফুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, শুক্রবার রাতে শরিফুল আজম রিপন ও ইসমাইল হোসেন রুবেল র‌্যাবকে ফোন করে জানান, চন্দ্রগঞ্জ দক্ষিণ মান্দারী চতালিয়া বাজারে মো. রুবেলের (২২) দোকানের ভেতর বিস্ফোরক দ্রব্য ও উগ্র মতাদর্শের বই মজুদ আছে। খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ওই বাজারে যায় র‌্যাব।

তখন তথ্যদাতা শরিফুল আজম রিপন ও ইসমাইল হোসেন রুবেল র‌্যাবকে মো. রুবেলের দোকানে নিয়ে যান। এ সময় তাঁদের দেওয়া তথ্য মতে র‌্যাব ওই দোকানের চৌকির নিচ থেকে বোমা ও বই উদ্ধার করে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, এ সময় তথ্যদাতা শরিফুল আজম রিপন ও ইসমাইল হোসেন রুবেলের অতি উৎসাহের বিষয়টি সন্দেহজনক হওয়ায় তাঁদের আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এ সময় তাঁরা জানান, দোকানি রুবেলের সঙ্গে শত্রুতার জের ধরে চারজন মিলে নাটক সাজিয়ে র‌্যাবকে মোবাইল ফোনে জানান।

পরে তাঁদের স্বীকারোক্তি মোতাবেক অপর দুজনকে মান্দারী এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এ ঘটনায় চন্দ্রগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ