ঢাকা, বৃহস্পতিবার 20 September 2018, ৫ আশ্বিন ১৪২৫, ৯ মহররম ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

বাংলাদেশ ব্যাংক দুই সপ্তাহের মধ্যে ১৫.২৫ মিলিয়ন ডলার ফিরে পাবে

অনলাইন ডেস্ক: বাংলাদেশ ব্যাংক আশা করছে দুই সপ্তাহের মধ্যে তাদের রিজার্ভের চুরি হওয়া ১৫ দশমিক ২৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ফিলিফিন্স থেকে ফিরে পাবে। ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর আবু হেনা মোহাম্মদ রাজি হাসান আজ এ কথা জানান।

তিনি বলেন, ‘চুরি হওয়া অর্থ ফেরত পাঠানোর বিচারের রায় বাংলাদেশের অনুকূলে... এই রায় বাস্তবায়নের পর আমরা অর্থ ফেরত পাবো।’

তিনি আরো বলেন, এই রায়ের প্রক্রিয়া সম্পন্ন হতে দুই সপ্তাহ সময় লাগবে।

এর আগে বাংলাদেশ ব্যাংকের জেনারেল ম্যানেজার দেব প্রসাদ বাসসকে বলেছিলেন, ‘কয়েক দিনের মধ্যে ১৫ দশমিক ২৫ মিলিয়ন ডলার বাংলাদেশ ব্যাংকে জমা হবে।’

তিনি জানান, ‘এই অর্থ তখন ফিলিপিন্সের সেন্ট্রাল ব্যাংকের ভল্টে রয়েছে। সে দেশের আদালতের রায় অনুযায়ী তা গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ-এর অনুকূলে ছাড় করা হবে।’

তিনি বলেন, ম্যানিলা থেকে এই অর্থ ফিরে পাওয়ার পর চুরি হওয়া মোট অর্থ ফিরে পাওয়ার পরিমাণ দাঁড়াবে ৩৫ দশমিক ২৫ মিলিয়ন ডলার। এ বছরের ৪ ফেব্রুয়ারি নিউইয়র্ক ফেড-এ বাংলাদেশের একাউন্ট থেকে ১০১ মিলিয়ন ডলার চুরি হয়।

ফিলিপিন্সের প্রধান সরকারি কৌঁসুলির উদ্ধৃতি দিয়ে ফিলিপিন্স ক্যাপিটালের এক রিপোর্টে বলা হয়, ‘আদালত ঘোষণা করছে যে, এই অর্থের যথাযথ মালিক হলো বাংলাদেশ।’

অজ্ঞাত হ্যাকাররা ম্যানিলায় রিজাল কমার্শিয়াল ব্যাংকিং করপোরেশনের চারটি একাউন্টে ৮১ মিলিয়ন ডলার ট্রান্সফার করতে সম্মত হয়। এ ছাড়া তারা শ্রীলংকার একটি ব্যাংকে ২০ মিলিয়ন ডলার ট্রান্সফার করে।

বাংলাদেশ ব্যাংক শ্রীলংকা থেকে ২০ মিলিয়ন ডলার ফিরিয়ে আনতে সক্ষম হয়। হ্যাকাররা একটি ভুল স্পেলিং করায় শ্রীলংকায় অর্থ ট্রান্সফার ব্যর্থ হয়ে যায়।-বাসস

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ