ঢাকা, বুধবার 5 October 2016 ২০ আশ্বিন ১৪২৩, ৩ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

মিরসরাইয়ে বাইপাসের পরিবর্তে উড়াল সেতুর দাবিতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন

মিরসরাই (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা : সড়ক চাই, ফসলি জমির ক্ষতি চাই না। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বাঁকা রাস্তা চাই না।দেশ উন্নয়নে সড়ক চাই। সড়কের উপর ফ্লাইওভার চাই। এমন সব ফেষ্টুন ব্যানার হাতে নিয়ে চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে মানববন্ধন করেছে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ৬ লেন প্রকল্পের জায়গা অধিগ্রহণে ক্ষতিগ্রস্তরা। রবিবার সকালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মিরসরাই সদরে মানববন্ধন করেন মিরসরাইয়ে গোভনিয়া, পশ্চিম মিরসরাই, তারাকাটিয়া ও সুফিয়া রোড়ের গ্রামবাসী। মানববন্ধন পূর্বে মিরসরাই প্রেস ক্লাবে এক সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এসময় গ্রামবাসী দাবি করেন, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক ছয় লাইনে উন্নিত করার জন্য দেশের সব স্থানে সড়কের পাশে বাইপাস করা হচ্ছে। দেশের উন্নয়নের জন্য মহাসড়ক প্রয়োজন। কিন্তু মিরসরাই সদরে সড়কের পাশে বাইপাস না করে অন্যত্র দিয়ে ঘুরিয়ে নেয়া হচ্ছে। এতে করে গোভনিয়া, পশ্চিম মিরসরাই, তারাকাটিয়া ও সুফিয়া রোড় গ্রামবাসীর ৭ হাজার ৮শত শতক ফসলি জমি, ৭৫টি পরিবার, ২টি শহীদ মুক্তিযোদ্ধার কবরস্থান, ৪টি মহল্লার কবরস্থান, ২০টি পুকুর, ৩০টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।
তাই বাইপাস না করে উড়াল সেতুর দাবি জানান তারা।মানববন্ধনে মিরসরাই পৌরসভার মেয়র গিয়াস উদ্দিন, উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রচার সম্পাদক শহীদুন্নবী, ১১ নম্বর মঘাদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান শাহীনূল কাদের চৌধুরী, দাউদুল আলম, মো. মাহতাব, মুসলিম উদ্দিন আজিম, জসিম উদ্দিন, নুর উদ্দিন, আসমা আক্তার বক্তব্য রাখেন। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জিয়া আহম্মদ সুমনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে একটি স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জিয়া আহম্মদ সুমন জানান, উড়াল সেতুর দাবিতে একটি স্মারকলিপি তাকে দেওয়া হয়েছে। তিনি শীঘ্রই জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে স্মারকলিপিটি প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে পাঠাবেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ