ঢাকা, শনিবার 15 October 2016 ৩০ আশ্বিন ১৪২৩, ১৩ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

পাকিস্তান সিদ্ধান্ত নিতে না পারলে কাশ্মীর মুক্ত করার সুযোগ হাতছাড়া হবে

১৪ অক্টোবর, ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস ও এবিপি : ভারতের বিরুদ্ধে নাশকতামূলক কার্যকলাপ আরও বৃদ্ধি করার সুযোগ দেওয়া উচিত পাকিস্তান প্রশাসনের বলে দাবি করেছেন নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন জয়েশ-ই-মুহাম্মদ প্রধান মাসুদ আজহার।
ভারতীয় ইংরেজি দৈনিক ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানায়, আজহারের মতে, এখন যদি পাকিস্তান প্রশাসন এই সিদ্ধান্ত নিতে না পারে, তাহলে কাশ্মীর মুক্ত করার এক ‘ঐতিহাসিক সুযোগ’ হাতছাড়া হবে।
জয়েশের সাপ্তাহিক আল-কালাম পত্রিকার সম্পাদকীয়তে এই দাবি করেছে আজহার বলে দাবি করে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস এই তথ্য জানায়। ওই সম্পাদকীয়তে আজহার বলেছেন, পাকিস্তান সরকার যদি একটু সাহস দেখায় তাহলেই কাশ্মীর সমস্যা থেকে শুরু করে পানিবণ্টন সমস্যার সবকিছুই একেবারে সমাধান করা সম্ভব।
আজহার আরও বলেন, অন্য কিছু না করতে পারলেও, সরকারের উচিত মুজাহিদদের জন্য পথ প্রশস্ত করা। তাহলেই, ১৯৭১ সালের পরাজয়ের তিক্ত স্মৃতিকে ২০১৬ সালে সাফল্যের উল্লাসে পরিণত করা সম্ভব হবে। মাসুদের মতে, একমাত্র জেহাদি কার্যকলাপ দিয়ে ভারতকে ভাঙা সম্ভব। তার হুমকি, রাস্তা খুলে দিক পাকিস্তান সরকার, ঝাঁপিয়ে পড়ব ভারতের ওপর।
সম্পাদকীয়তে মাসুদ আজহার লেখে, এখন ভারত পাকিস্তানের ওপর চাপ সৃষ্টি করছে। এখানে উল্টোটা হওয়া উচিত। তার দাবি, কাশ্মীরে যা হচ্ছে, তার ফলে পাকিস্তান প্রশাসনের উচিত ছিল সার্ক বৈঠক বাতিল করা। তার আরও দাবি, ভারতের সামরিক শক্তির কঙ্কাল উরি ও পাঠানকোটেই প্রকট হয়ে গিয়েছে।
মাসুদের এই মন্তব্য এমন একটা সময়ে এসেছে যখন জঙ্গি সংগঠনগুলোর পৃষ্ঠপোষকতা নিয়ে পাকিস্তান প্রশাসন ও সামরিক বাহিনীর মধ্যে দ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে এসেছে।
পাকিস্তান সংবাদ মাধ্যমের খবর, পাকিস্তানের মাটি থেকে জঙ্গিদের ভারত-বিরোধী কার্যকলাপের সহযোগিতাকে কেন্দ্র করে দ্বৈরথ ঘনীভূত হয়েছে। সেখানে উঠে আসে, যেহেতু পাকিস্তান গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই এই জঙ্গি সংগঠনগুলোকে ক্রমাগত ইন্ধন দিয়ে চলেছে, তাই তাদের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নিতে পারছে না সেদেশের প্রশাসন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ