ঢাকা, সোমবার 14 October 2019, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬, ১৪ সফর ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

বাংলাদেশে বিনিয়োগ করবে সৌদি উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠান আল রাজী গ্রুপ 

অনলাইন ডেস্ক : বাংলাদেশে সিমেন্ট ও কাগজ কারখানা স্থাপনে বিনিয়োগ করবে সৌদি আরবের বিখ্যাত উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠান আল রাজী গ্রুপ। এ লক্ষ্যে আজ শিল্প মন্ত্রণালয়ে বিসিআইসি এবং আল রাজী গ্রুপের মধ্যে একটি দ্বিপাক্ষিক সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করা হয়। 

শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমুর উপস্থিতিতে সমঝোতা স্মারকে বিসিআইসির পক্ষে সংস্থার সচিব হাছনাত আহমেদ চৌধুরী এবং সৌদি আরবের মেসার্স আল রাজী কোম্পানি ফর ইন্ডাস্ট্রি অ্যান্ড ট্রেড এর পক্ষে কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইউসিফ আল রাজী স্বাক্ষর করেন। এসময় শিল্প মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মোঃ মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া এনডিসি, সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীসহ শিল্প মন্ত্রণালয় ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, চলতি বছর ১-৩ মার্চ শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু সৌদি আরব সফরকালে সে দেশের বাণিজ্য ও শিল্পমন্ত্রী ড. তাওফিগ ফাওজান আলরাবিয়াহ্ এবং সৌদি বিনিয়োগকারীদের সাথে দীর্ঘ বৈঠক করেন। এ সময় তিনি বাংলাদেশের সার, কেমিক্যাল, চিনি, সিমেন্ট, কাগজসহ উদীয়মান শিল্পখাতগুলোতে বিনিয়োগের জন্য সৌদি উদ্যোক্তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। 

পরবর্তীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৪-৬ জুন সৌদি আরব সফরকালে জেদ্দা চেম্বার অব কমার্স আয়োজিত এক সভায় সৌদি উদ্যোক্তাদের বাংলাদেশে বিনিয়োগের আহবান জানান। এ প্রেক্ষিতে আল রাজী গ্রুপের পক্ষ থেকে বিসিআইসির আওতাধীন রাষ্ট্রায়ত্ত কারখানা ছাতক সিমেন্ট কোম্পানি এবং কর্ণফুলী পেপার মিলস্ লিমিটেড (কেপিএম) এলাকায় সিমেন্ট ও কাগজ কারখানা নির্মাণের পাশাপাশি বিদ্যুৎ উৎপাদনের আনুষ্ঠানিক  প্রস্তাব দেয়া হয়। আজ দ্বিপাক্ষিক সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের মাধ্যমে সেটি চূড়ান্ত করা হলো। 

সমঝোতা স্মারক অনুযায়ী, সৌদি আল রাজী গ্রুপ ও বিসিআইসির যৌথ উদ্যোগে কিংবা সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্বে (পিপিপি) বিদ্যমান ছাতক সিমেন্ট কোম্পানি সংলগ্ন নিজস্ব জায়গায় ৩৩০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কেন্দ্রসহ বার্ষিক ১৫ লাখ মেট্রিক টন উৎপাদন ক্ষমতাসম্পন্ন একটি আধুনিক প্রযুক্তির সিমেন্ট কারখানা স্থাপন করা হবে। পাশাপাশি বিদ্যমান কর্ণফুলী পেপার মিলস্ লিমিটেড (কেপিএম) সংলগ্ন কারখানার নিজস্ব জমিতে ৩৬০ মেগাওয়াট পাওয়ার প্লান্টসহ বার্ষিক ৩ লাখ মেট্রিক টন উৎপাদন ক্ষমতাসম্পন্ন অত্যাধুনিক প্রযুক্তির একটি কাগজ কারখানা স্থাপন করা হবে। উভয় কারখানায় উৎপাদিত অতিরিক্ত বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ করা হবে। 

সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে শিল্পমন্ত্রী বলেন, সৌদি আরব বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ ও ঐতিহাসিক উন্নয়ন অংশীদার। সৌদি প্রতিষ্ঠান আল রাজী গ্রুপের সাথে বিসিআইসির চুক্তি স্বাক্ষরের মাধ্যমে সৌদি-বাংলাদেশ বিনিয়োগের নতুন ধারা সূচনা হলো। এর ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশে ভবিষ্যতে আরো সৌদি বিনিয়োগ আসবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। তিনি এ সমঝোতা স্মারককে প্রাথমিক বিনিয়োগ চুক্তি হিসেবে উল্লেখ করে দ্রুত এর আর্থিক ও কারিগরি সমীক্ষা শেষে একে চূড়ান্ত রূপ দিতে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দেন। 

 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ