ঢাকা, শনিবার 22 October 2016 ৭ কার্তিক ১৪২৩, ২০ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

নির্বাচনের ফল প্রশ্নে ট্রাম্পের বক্তব্য বিপজ্জনক

২১ অক্টোবর, বিবিসি : যুক্তরাষ্ট্রের আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ফল মেনে না নেওয়ার ব্যাপারে রিপাবলীকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প যে আভাস দিয়েছেন, তাকে ‘বিপজ্জনক’ বলে উল্লেখ করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার ফ্লোরিডার মিয়ামিতে ডেমোক্র্যাটিক প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনের পক্ষে এক নির্বাচনি সমাবেশে অংশ নিয়ে ওবামা এ কথা বলেন। আগামী ৮ নভেম্বর অনুষ্ঠেয় প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে গত বুধবার রাতে তৃতীয় ও শেষ বিতর্কে অংশ নেন হিলারি ও ট্রাম্প। নেভাদা অঙ্গরাজ্যের লাস ভেগাসে অবস্থিত নেভাদা বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত ওই বিতর্কে সঞ্চালক ক্রিস ওয়ালেস ট্রাম্প নির্বাচনের ফল মেনে নেবেন কিনা, সে বিষয়ে জিজ্ঞাসা করেন। আগে  থেকেই নির্বাচনে কারচুপির দাবি করে আসা ট্রাম্প তৃতীয় ও সর্বশেষ নির্বাচনি বিতর্কেও (প্রেসিডেন্সিয়াল ডিবেট) সেই অবস্থান বজায় রেখে ফলাফল না মেনে নেওয়ারই ইঙ্গিতই দেন। তিনি বলেন, ‘সময় এলেই বলব। আমি আপনাদের এখন উত্তেজনার মধ্যে রাখতে চাই।’ এর কয়েক ঘণ্টা পর বৃহস্পতিবার এক সমাবেশে ট্রাম্প সমর্থকদের উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে সাফ জানিয়ে দেন পরাজিত হলে ফলাফল মেনে নেবেন না। তিনি জানান, নির্বাচনে জিতলেই কেবল ফল মেনে নেবেন। ট্রাম্পের ওই বক্তব্যের কয়েক ঘণ্টা পর প্রতিক্রিয়া জানিয়ে ওবামা বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনব্যবস্থা নিয়ে জনগণের মনে সন্দেহের বপন করার মধ্য দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের শত্রুদেরই উসকানি দিচ্ছেন ট্রাম্প।কয়েক দিন ধরে নির্বাচন সুষ্ঠু না হওয়ার ব্যাপারে সংশয় প্রকাশ করে আসছেন ট্রাম্প। তিনি বলেন, হিলারির প্রচার দল ও কিছু গণমাধ্যম নির্বাচনের ফলাফলকে নিজেদের পক্ষে নেওয়ার চেষ্টা করতে পারে।
তখনও ট্রাম্পকে কারচুপির অভিযোগ বন্ধ করার আহ্বান জানিয়েছিলেন ওবামা। তিনি বলেন ‘নির্বাচনে কারচুপির যে অভিযোগ ট্রাম্প করেছেন,তা ভিত্তিহীন। তার কোনও প্রমাণ নেই। আমি এই জীবনে অথবা আধুনিক রাজনীতির ইতিহাসে এমন প্রেসিডেন্ট প্রার্থী দেখিনি, যিনি ভোট গ্রহণ হওয়ার আগেই নির্বাচনি প্রক্রিয়াকে প্রশ্নবিদ্ধ করেন।’
যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দি¦তা শুরুর পর থেকে একের পর বিতর্ক জন্ম দিয়ে যাচ্ছেন রিপাবলীকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প। মুসলীম ও অভিবাসীদের নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে সমালোচিত হয়েচেন তিনি। সম্প্রতি নারীদের নিয়ে তার বিভিন্ন বিতর্কিত বক্তব্য ও যৌন কেলেঙ্কারি ফাঁস হওয়ার পর আরও চাপে পড়েন এ রিপাবলীকান প্রার্থী। ট্রাম্প অবশ্য এসব অভিযোগ অস্বীকার করে নিজেকে ‘নোংরা রাজনীতির শিকার’ বলে দাবি করে আসছেন।নির্বাচনের আগে আগে নারী ইস্যুতে নিজের ইতিবাচক ভাবমূর্তি গড়ার চেষ্টা করে যাচ্ছেন তিনি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ