ঢাকা, মঙ্গলবার 25 October 2016 ১০ কার্তিক ১৪২৩, ২৩ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

বগুড়ায় নিখোঁজ হওয়া ইমাম মোয়াজ্জিন বাড়ি ফিরেছেন

বগুড়া অফিস : বগুড়া শহরের কৈপাড়া এলাকা থেকে রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হওয়া মসজিদের ইমাম ও মোয়াজ্জিন ফিরে এসেছেন। রবিবার দুপুরে তারা বাসায় পৌঁছেছেন বলে জানিয়েছেন বারিধারা জামে মসজিদের সেক্রেটারি খন্দকার মামুন। বাসায় ফিরে তারা জানান, ১৩ অক্টোবর রাত সাড়ে ৮টার দিকে একটি সাদা রং এর মাইক্রোবাস মসজিদের সামনে আসে। এসময় ইমাম আব্দুল্লাহ মুকুল ও মোয়াজ্জিন রমজান আলী মসজিদ থেকে বাসায় ফিরছিলেন। মাইক্রোবাসে থাকা অজ্ঞাত ব্যক্তিরা তাদেরকে উঠিয়ে নিয়ে কালো কাপড়ে চোখ বেঁধে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। সেখানে একটি অন্ধকার ঘরে তাদেরকে আটকে রাখা হয়। তাদেরকে নিয়মিত খাবার সরবরাহ করা হতো কিন্তু ঘরের বাইরে বের হতে দিত না। আটক অবস্থায় তাদেরকে জঙ্গিবাদ এবং জিহাদ সম্পর্কে বিভিন্ন জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। শুক্রবার (২১ অক্টোবর) রাতে তাদেরকে আবারো চোখ বেঁধে মাইক্রোবাসে উঠিয়ে ঢাকার আশুলিয়া এলাকায় চোখের বাঁধন খুলে রাস্তায় নামিয়ে দেয়া হয়। এসময় দু’জনকে বগুড়ায় আসার জন্য গাড়ি ভাড়াও দেয়া হয়। ওই রাতে তারা আশুলিয়ায় এক আত্মীয়ের বাড়িতে যায়। সেখান থেকে রবিবার দুপুরে বগুড়ায় আসেন। 

 

উল্লেখ্য, গত ১৩ অক্টোবর রাত সাড়ে ৮টার দিকে শহরের কৈপাড়া এলাকার বারিধারা জামে মসজিদের ইমাম ও মোয়াজ্জিন রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হন। এঘটনার পরদিন ১৪ অক্টোবর মসজিদ কমিটির সভাপতি আব্দুর রউফ থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন (জিডি নং-৯০১ তাং-১৪-১০-১৬)। সাধারণ ডায়েরির তদন্ত শুরু করেন নারুলী পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই শফিক। সোমবার তিনি জানান, নিখোঁজ হওয়া ইমাম ও মোয়াজ্জিন ফিরে আসার বিষয়টি তাকে জানানো হয়নি। তবে মসজিদ কমিটির সেক্রেটারি খন্দকার মামুন আরো জানান, বিষয়টি থানায় অবহিত করে ১৪ অক্টোবর থানায় দায়ের করা জিডি প্রত্যাহার করে নিয়েছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ