ঢাকা, বুধবার 26 October 2016 ১১ কার্তিক ১৪২৩, ২৪ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

সাপাহারে পৃথক দুর্ঘটনায় শিশুসহ ৪ জন হতাহত

সাপাহার (নওগাঁ) সংবাদদাতা : নওগাঁর সাপাহারে তালের আঁটি কাটতে গিয়ে বড় ভাই ফরহাত রেজা (৫) এর দায়ের কোপে ছোট ভাই জিহাদ আলী (২) নামের এক অবুঝ শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে।
রোববার সকালে সাপাহার উপজেলার শ্রীধরবাটি আলাদিপুর গ্রামে মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটে।
জানা গেছে, ওই দিন সকালে বাড়ির পাশে ফারুক হোসেন এর শিশু পুত্র ফরহাত রেজা শাস খাওয়ার জন্য দা দিয়ে তালের আঁটি কাটছিল। এ সময় সাথে থাকা তার ছোট ভাই জিহাদ আলী অজান্তেই ওই আঁটিটি ধরতে  গেলে বড় ভায়ের দায়ের কোপটি আঁটিতে না লেগে ছোট ভাই জিহাদের মাথায় লাগে। সাথে সাথে শিশু জিহাদ অচেতন হয়ে পড়লে তড়িঘড়ি করে লোকজন তাকে নিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নিয়ে আসে। এ সময় কর্তব্যরত ডাক্তার শিশু জিহাদকে দেখে মৃত্যু ঘোষ ণা করে। শিশুটির করুণ মৃত্যুর সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে তাৎক্ষণিক এলাকায় এক শোকের ছায়া নেমে আসে।
অপর দিকে গত শনিবার বিকেলে সাপাহার-পোরশা রাস্তার তাজপুর তলাপাড়া ব্রীজের নিকট দুই মোটর সাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে আহত মোটর সাইকেল চালক সাইদুল ইসলাম (৩৫) রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেছে। দুর্ঘটনায় নিহত সাইদুল ইসলাম উপজেলার তেঘরিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ধর্মীয় শিক্ষক। তার গ্রামের বাড়ি পত্নীতলা উপজেলার করমজাই গ্রামে। সে ওই দিন স্কুল ছুটির পর তেঘরিয়া স্কুল হতে  মোটর সাইকেলযোগে বাড়ি ফিরছিল। এমন সময় ব্রীজের নিকট বিপরীত দিক হতে আসা একটি মোটর সাইকেলের সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হলে দু’জন চালকই নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ছিটকে মাটিতে পড়ে যায়।
এ সময় তাৎক্ষণিক লোকজন তাদেরকে উদ্ধার করে সাপাহার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নিয়ে এলে প্রাথমিক চিকিৎসার পর তাদেরকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়।
সন্ধ্যায় রাজশাহীতে পৌঁছার পর শিক্ষক সাইদুল ইসলাম মৃত্যুবরণ করেন।
অপর মোটর সাইকেল চালক উপজেলা সদরের গোডাউনপাড়ার ওবায়দুরের পুত্র সুজন (২২) ও তার সহযাত্রী মোখলেছ এর কন্যা মিতা (১৫) গুরুতর আহত অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেলে ভর্তি রয়েছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ