ঢাকা, বৃহস্পতিবার 20 September 2018, ৫ আশ্বিন ১৪২৫, ৯ মহররম ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

জায়নামাজ বোরাকে চড়ে

মুহাম্মদ আবুল হুসাইন

জায়নামাজ বোরাকে চড়ে
যখন হারিয়ে যাই সিজদায়,
বুজে যায় চোখ;
তখন ঝম ঝম শব্দ করে নড়ে ওঠে পৃথিবী-গোলক।

আরশের ঠিকানা সিলেক্ট করে যখন
ক্লিক করি বুকের কী বোর্ডে;
বিষ্ময়কর মহাকাশে হারিয়ে যাই…
ছায়াপথ, গ্রহ, নক্ষত্র সব তুচ্ছ মনে হয়,
সময়ের ডাইমেনশন ছিঁড়ে যায়
জায়নামাজ বোরাক হয়ে ওঠে,
আমার মধ্যে যেন বিগব্যাঙ বিষ্ফোরণ শরু হয়।

মহাকাশের মহাস্পেসে লক্ষ-কোটি নক্ষত্রের সাথে মিশে
শা শা করে ছুটে যাই, গড়ে তুলি সুরের ঐকতান
যেন মোরা এক দেহ এক প্রাণ
আমাদের মঞ্জিল একটাই…

জায়নামাজ-যান থেকে নেমে এই গলি-ঘুপচির পৃথিবীতে
যখন আবার ফিরে আসি
মহাকাশের সেই গতিদৃশ্য তখনও চোখে ভাসে…

রাজপথের মানুষ ও যানবাহনগুলোর দিকে তাকাই,
আবার সেই চিরন্তন গতিদৃশ্য মূর্ত হয়-
চাকা ঘোরে
পা ঘোরে
ঘুরতে ঘুরতে ছুটতে ছুটতে
ধান্দাবাজি করতে করতে
হারিয়ে যায়
কোন অজানায়…
নাকি মহাকালের চিরন্তন ঠিকানায়...

 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ