ঢাকা, শুক্রবার 28 October 2016 ১৩ কার্তিক ১৪২৩, ২৬ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

শিশুকে যৌন নির্যাতন করলেই নপুংসক

২৭ অক্টোবর, দ্য নিউইয়র্ক টাইমস : ইন্দোনেশিয়ায় যৌন নির্যাতনের দায়ে অভিযুক্ত ব্যক্তিদের রাসায়নিক উপাদান ব্যবহারের মাধ্যমে নপুংসক করা হবে বলে একটি ডিক্রি জারি করা হয়েছে। গতকাল বুধবার এ কথা জানানো হয়। ১৯ অক্টোবর দেশটির প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোদো এই ডিক্রিতে স্বাক্ষর করেন।

দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে যৌন নির্যাতনের ঘটনা বেড়েই চলছে। যৌন নির্যাতনকারীদের কবল থেকে রেহাই পাচ্ছে না শিশু থেকে বৃদ্ধা পর্যন্ত। অনেক ক্ষেত্রে ঘটছে গণধর্ষণের মতো ঘটনা। পরে বিষয়টি জানাজানি হওয়ার ভয়ে যৌন নির্যাতনের শিকার শিশু বা নারীকে হত্যাও করা হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে যৌন নির্যাতনকারীর সর্বোচ্চ শাস্তির জন্য একটি অধ্যাদেশ জারি করেছে ইন্দোনেশিয়া সরকার। অধ্যাদেশে বলা হয়েছে, শিশুদের যৌন হয়রানি করলে এখন থেকে ওই যৌন নির্যাতনকারীকে রাসায়নিক উপাদান দিয়ে নপুংসক করে দেয়া হবে। শুধু তা-ই নয়, ওই নির্যাতনকারী যখন মুক্তি পাবেন, তখনো তাঁর শরীরে ইলেকট্রনিক তদারকি যন্ত্র লাগানো থাকবে। যাতে একই কাজ তিনি আর করতে না পারেন। দ্য নিউইয়র্ক টাইমসের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়, দেশটির সুমাত্রা দ্বীপে গত এপ্রিল মাসে ১৪ বছর বয়সী এক শিশুকে গণধর্ষণ করে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকায় সাত কিশোরের ১০ বছর করে কারাদণ্ডাদেশ দেয়া হয়েছে। চাঞ্চল্যকর এ ঘটনার পরই শিশু যৌন নির্যাতনকারীদের রাসায়নিকভাবে নপুংসক করে দেয়ার এই সিদ্ধান্ত নিল দেশটির সরকার।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ