ঢাকা, শুক্রবার 28 October 2016 ১৩ কার্তিক ১৪২৩, ২৬ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

আল-আকসা মসজিদসহ জেরুসালেম সংরক্ষণে ইউনেস্কোর অনুমোদন

২৭ অক্টোবর, আল জাজিরা : প্রাচীন শহর জেরুসালেমের সংরক্ষণে নতুন একটি রেজল্যুশন অনুমোদন করেছে ইউনেস্কোর ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ কমিটি।

গত বুধবার এক গোপন ভোট গ্রহণের মাধ্যমে জাতিসংঘের এ সাংস্কৃতিক সংগঠনটি প্রাচীরবেষ্টিত এলাকাটি রক্ষা করার জন্য একমত হন।

শহরটিকে মুসলিম, খ্রিস্টান ও ইহুদিরা তাদের একটি পবিত্র ধর্মীয় স্থান হিসেবে মনে করে থাকে। শহরটি এতদিন বিপন্ন বিশ্ব ঐতিহ্য তালিকায় ছিল।

এছাড়াও জেরুসালেমের পবিত্র এ স্থানটির সংরক্ষণে বর্তমান অবস্থা নির্ধারণ করতে ইউনেস্কোর ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ কমিটির বিশেষজ্ঞদেরকে সেখানে প্রবেশে ক্রমাগত অস্বীকৃতির জন্য ইসরাইলের তীব্র সমালোচনা করা হয়।

মুসলমানরা পবিত্র এ স্থানটিকে হারাম আল শরিফ নামে ডেকে থাকেন। স্থানটিতে আল-আকসা মসজিদ এবং রক পাথরের সুবর্ণ গম্বুজ রয়েছে। সৌদি আরবের মক্কা ও মদিনার পর এটিকে ইসলামের তৃতীয় পবিত্রতম স্থান হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

ফিলিস্তিনের একজন কর্মকর্তা সায়বে এরাকাত বলেন, ‘খ্রিস্টান, ইহুদি এবং ইসলাম ধর্মের জন্য জেরুসালেমের গুরুত্ব পুনর্নিশ্চিত করার উদ্দেশ্যেই ইউনেস্কোর এ ভোট গ্রহণ।’

তিনি আরো বলেন, ‘আল-আকসা মসজিদ কম্পাউন্ডসহ এই তিন ধর্মের ধর্মীয় স্থানগুলোর স্থিতাবস্থার জন্য এই রেজল্যুশন। ইসরাইল সরকার এবং চরমপন্থী ইহুদি গ্রুপের অব্যাহত নিয়মানুগ উস্কানি ও উত্তেজক কর্মকাণ্ডের কারণে প্রাচীন এ শহরটি হুমকির মুখে।’

শহরটি নিয়ে ফিলিস্তিন ও ইসরাইলের মধ্যে চরম দ্বন্দ অব্যাহত রয়েছে। এটি পূর্ব জেরুসালেমে অবস্থিত। ১৯৬৭ সালে মধ্যপ্রাচ্যের যুদ্ধে পবিত্র এ শহরটি ইসরাইল দখল করে নেয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ