ঢাকা, শনিবার 29 October 2016 ১৪ কার্তিক ১৪২৩, ২৭ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

রাজধানীতে নিজ মাথায় গুলী চালিয়ে ব্যবসায়ীর আত্মহত্যা

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানীর ধানমন্ডির একটি বাসা থেকে আবদুল হালিম চৌধুরী (৬৫) নামে এক ব্যবসায়ীর গুলীবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাতে লাশটি উদ্ধার করা হয়। নিহত ব্যক্তির কপালে গুলীর চিহ্ন রয়েছে। নিহতের পরিবারে দাবি, নিজের লাইসেন্স করা আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে বৃহস্পতিবার রাতে মাথায় গুলী করেন আবদুল হালিম। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। 

ধানমন্ডি থানার ওসি (তদন্ত) মো. হেলাল উদ্দিন জানান, ধানমন্ডি ৯-এ রোডের ১৩২ নম্বর বাসায় পরিবার নিয়ে বসবাস করতেন আবদুল হালিম চৌধুরী। পরিবারের খবরে ঘটনাস্থল থেকে তার লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

নিহতের স্ত্রী নাজমারা নাজনিন (৬০) ও একমাত্র ছেলে মায়েন রিদওয়ান (২১) পুলিশকে জানিয়েছেন, আবদুল হালিম দীর্ঘদিন ক্যান্সার ও কিডনি রোগে ভুগছিলেন। চিকিৎসা করানোর পর কিছুটা সুস্থ হয়েছিলেন। কিন্তু সম্প্রতি তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়। এ নিয়ে আবদুল হালিম চৌধুরী অবসাদে ভুগছিলেন। রাতে লাইসেন্স করা টু-টু বোরের রাইফেল দিয়ে তিনি আত্মহত্যা করেন।

ধানমন্ডি থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আবদুস সবুর জানান, হালিম চৌধুরী ক্যান্সারে ভুগছিলেন। সম্প্রতি তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়। তিনি তার লাইসেন্স করা আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ ঢাকা মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় ধানমন্ডি থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে। ঘটনাটির তদন্ত চলছে। পরিবারের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, আব্দুল হালিম পরিবারের সঙ্গে নিজ বাড়িতেই থাকতেন। দীর্ঘদিন ধরে তিনি ক্যান্সার ও কিডনি রোগে ভুগছিলেন। তার চিকিৎসা চলছিল। সম্প্রতি তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়। বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে তিনি নিজের লাইসেন্স করা টু-টু বোরের রাইফেলটি পরিষ্কার করার কথা বলে বের করেন। এরপর স্ত্রী, সন্তানের সামনেই মাথায় গুলী করে আত্মহত্যা করেন। 

এদিকে রাজধানীর হাজারীবাগের ট্যানারী মোড়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে খাইরুল (২৬) নামের এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল শুক্রবার দুপুর সোয়া একটার দিকে। আহত অবস্থায় তাকে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে আসলে দুপুর সোয়া দুইটার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। রিয়াদ নামে মৃত খাইরুলের এক সহযোগী জানান, তারা বাসা পাল্টানোর কাজ করছিলেন। পরে জানতে পারেন যে রাস্তায় বিদ্যুতের খুঁটির সাথে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে খাইরুল আহত হয়েছে। ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এস আই বাচ্চু মিয়া জানান, লাশ মর্গে রাখা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ