ঢাকা, শনিবার 29 October 2016 ১৪ কার্তিক ১৪২৩, ২৭ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

ফুলবাড়িতে কয়লাভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র গড়ে উঠায় গ্রামবাসীর মানববন্ধন

ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) সংবাদদাতা: দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার দুধিপুর গ্রাম এলাকায় কয়লা ভিত্তিক তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র গড়ে উঠায় পরিবেশ ফসল ও মানব জীবনের ক্ষতি হওয়ায় ৬দফা দাবী বাস্তবায়নে ঘন্টাব্যাপী মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
গত বুধবার ফুলবাড়ী উপজেলার পূর্ব দুধিপুর গ্রামের প্রতিটি মানুষের জীবন বাঁচার সংগ্রাম কমিটির আহবায়ক মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আনোয়ারুল হক এর নেতৃত্বে গ্রামবাসিদের নিয়ে তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে ক্যানেলের পাশের ঘন্টাব্যাপী ৬ দফা দাবিতে মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানব বন্ধনে বক্তব্য রাখেন সংগ্রাম কমিটির আহবায়ক মূক্তিযোদ্ধা মোঃ আনোয়ারুল হক, তিনি বক্তব্যে বলেন, তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র গড়ে তোলার আগে সরকার আমাদের জমি জমা ১ লাখ টাকা একর  দিয়েছে, বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি করার সময় একর প্রতি ২০ লাখ টাকা দিয়েছে। আমরা এতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছি।
তাপবিদ্যুৎ গড়ে উঠায় ঐ এলাকায় তার প্রভাব পড়ায় পরিবেশের ক্ষতি সাধন হচ্ছে, যেমন ফসলের উপর কয়লা পোড়ানোর এ্যাশ (ছাই) পড়ছে, বাড়িঘরে ছাই পড়ে ভেরে যাচ্ছে, মানুষের রোগবালাই সৃষ্টি হচ্ছে, ক্ষতিগ্রস্তদের কর্মসংস্থান  নেই, (১)পুর্ব দুধিপুর গ্রামের প্রতিটি মানুষকে ক্ষতিপুরণ দিতে হবে (২)পূর্ব দুধিপুর গ্রামের মানুষের জন্য পানির ব্যবস্থা করতে হবে (৩) গ্রামের বেকার যুবকদের স্থায়ী চাকরীর ব্যবস্থা করতে হবে (৪) তাপ বিদ্যুৎ হতে সরাসরি পূর্ব দুধিপুর গ্রামে বিদ্যুতের ব্যবস্থা করতে হবে (৫) গ্রামের মসজিদ নির্মাণের জন্য আর্থিক সাহায্য দিতে হবে (৬) তাপ বিদ্যুৎ এর পাশের একটি হাইস্কুল ও কলেজ নির্মাণের ব্যবস্থা করতে হবে।
এ সময় এলাকার দুধিপুর গ্রামের মোঃ আব্দুল খালেক (৬৫) ও  মোঃ আলমগীর অভিযোগ করে বলেন তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র গড়ে উঠার সময় কর্তৃপক্ষ অনেক আশার বাণী দিয়েছিলেন কিন্তু কোনটাই বাস্তবায়ন করেননি।
এখন তাপবিদ্যুৎ এর কারণে এই এলাকায় পরিবেশের মারাত্মক ক্ষতি হচ্ছে। আমরা ছাই এর কারণে এবং পানির অভাবে বাড়িতে থাকতে পারছিনা। অপর দিকে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে।
মানববন্ধনে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন শিবনগর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মামুনুর রহমান চৌধুরী,জীবন বাঁচার সংগ্রাম কমিটির  সচিব মোঃ রবিউল ইসলাম, মোঃ রফিকুল ইসলাম (বুলু) মোঃ আব্দুর রাজ্জাক, মোঃ হাবিবুর রহমান ও মোঃ আনিছুর রহমান। তারা ৬ দফা দাবী বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রী সহ বিভিন্ন দপ্তরে স্মারকলিপি প্রদান করেন।
তাদের ৬দফা দাবী বাস্তবায়ন করা না হলে আগামীতে গ্রামবাসীদেরকে নিয়ে কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে বলে সংগ্রাম কমিটির আহবায়ক মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আনোয়ারুল হক বলেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ