ঢাকা, শনিবার 29 October 2016 ১৪ কার্তিক ১৪২৩, ২৭ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

গাজীপুরে আরাকান ফেরত জঙ্গি ও প্রকৌশলীসহ হুজির ৪ সদস্য গ্রেফতার

গাজীপুর সংবাদদাতা : আরাকান ফেরত জঙ্গি ও দুই প্রকৌশলীসহ হরকাতুল জিহাদ (হুজি)’র ৪ সদস্যকে গাজীপুরে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এসময় ঘটনাস্থল থেকে দুইটি ছোরা, একটি চাপাতি, ৪টি ককটেল, ইলেকট্রিক ডিভাইস, ১৪টি পেট্রোল বোমা ও বিভিন্ন জিহাদি বই উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে গাজীপুর পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ এ তথ্য জানান।
গ্রেফতারকৃতরা হলো- গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের কাউলতিয়া মধ্যপাড়া এলাকার আবুল কাশেমের ছেলে মোঃ খাইরুল ইসলাম (২৬), টাঙ্গাইল সদরের বিশ্বাস বেতকা আটপুকুর গ্রামের আজিজুল হকের ছেলে মোঃ আমিনুল হক (৪৯), একই জেলার গোপালপুর থানার খামারপাড়া গ্রামের মৃত মনিরুল ইসলামের ছেলে মোঃ শহীদ উল্লাহ (৪৩) ও ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা থানার সৈয়দপাড়া গ্রামের সাইফুল ইসলাম খানের ছেলে মোঃ গোলাম কিবরিয়া খান (২৫)। এদের মধ্যে মোঃ খাইরুল ইসলাম ও গোলাম কিবরিয়া গাজীপুরের ইসলামিক ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজী (আইইউটি)’র প্রাক্তন শিক্ষার্থী এবং শহীদ উল্লাহ আরাকান ফেরত জঙ্গি।
পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ জানান, গাজীপুর জেলা পুলিশের স্পেশাল টাস্ক গ্রুপের (এসটিজি) সদস্যরা বৃহস্পতিবার ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ২০গজ পশ্চিমে জয়দেবপুর থানার নান্দুয়াইন এলাকার জঙ্গলের ভিতরে সুফিয়া কটেজের পরিত্যক্ত একতলা বিল্ডিংএ একত্রিত হয়ে জঙ্গিরা নাশকতামূলক কর্মকা- পরিচালনার জন্য শলাপরামর্শ করছিল। এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গাজীপুর জেলা পুলিশের স্পেশাল টেক্স গ্রুপের সদস্যরা বৃহস্পতিবার রাত আটটার দিকে সেখানে অভিযান চালিয়ে চার জঙ্গিকে গ্রেফতার করে। এসময় ঘটনাস্থল থেকে দুইটি ছোরা, একটি চাপাতি, ৪টি ককটেল বোমা, ইলেকট্রিক ডিভাইস, ১৪টি পেট্রোল বোমা ও বিভিন্ন জিহাদী বই উদ্ধার করা হয়। তাদের নিয়ে বিভিন্ন স্থানে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।
তিনি আরো জানান, গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে শহীদুল্লাহ জিহাদের মাধ্যমে শহীদ হওয়ার জন্য আরাকান গিয়েছিল। আমিনুল হক স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের কোমলমতি ছাত্র-ছাত্রীদের ব্রেনওয়াশ করে জিহাদের পথে নিয়ে আসে এবং জিহাদী বই দিয়ে এই লাইনে নিয়ে আসে। গ্রেফতারকৃত মোঃ খাইরুল ইসলাম ও গোলাম কিবরিয়া গাজীপুরের ইসলামিক ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজী (আইইউটি)’র প্রাক্তন শিক্ষার্থী। এই দুই জন পেশায় প্রকৌশলী। তারা বিভিন্ন বিস্ফোরক সরঞ্জাম ও গোপন যোগাযোগের সরঞ্জাম তৈরি করে এবং প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে। গ্রেফতারকৃতরা সবাই হরকাতুল জিহাদ (হুজি)’র সদস্য বলে জিজ্ঞাসাবাদকালে গ্রেফতারকৃতরা পুলিশকে জানিয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ