ঢাকা, রোববার 30 October 2016 ১৫ কার্তিক ১৪২৩, ২৮ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বিমান বহরে যুক্ত হলো দ্বিতীয় বোয়িং ৭৩৭-৮০০ এয়ারক্রাফট

গত শুক্রবার সকাল ৯টা ৩০ মিনিটে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের দ্বিতীয় বোয়িং ৭৩৭-৮০০ হযরত শাহ্জালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করার মধ্যদিয়ে এয়ারলাইন্সের বিমান বহরকে আরো শক্তিশালী করেছে। দ্বিতীয় বোয়িং ৭৩৭-৮০০ এয়ারক্রাফটটি যুক্ত হওয়ায় ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বিমান বহরে এখন মোট পাঁচটি এয়ারক্রাফট। আগামী ১১ নাভেম্বর ২০১৬ থেকে বোয়িং ৭৩৭-৮০০ এয়ারক্রাফট দিয়ে ঢাকা থেকে মাস্কাট ফ্লাইট পরিচালনার মাধ্যমে মধ্যপ্রাচ্যে প্রথম ফ্লাইট শুরু করতে যাচ্ছে।
১৭ জুলাই ২০১৪ তারিখে দ্রুতগতি সম্পন্ন দু’টি ড্যাশ৮-কিউ৪০০ এয়ারক্রাফট দিয়ে ইউএস-বাংলা যাত্রা শুরু করে। নতুন যুক্ত হওয়া বোয়িং-এ ৮টি বিজনেস ক্লাস, প্রিমিয়াম ইকোনমি ও ইকোনমি ক্লাসসহ মোট ১৫৮টি আসন ব্যবস্থা রয়েছে। অভ্যন্তরীণ ও আঞ্চলিক রুট পরিচালনার জন্য বর্তমানে ৭৬ আসনবিশিষ্ট তিনটি ড্যাশ৮-কিউ৪০০ এয়ারক্রাফটে রয়েছে। প্রতিষ্ঠার পর থেকে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স আঞ্চলিক রুট ঢাকা-কাঠমুন্ডু-ঢাকা’সহ অভ্যন্তরীণ বিভিন্ন গন্তব্যে প্রায় সতের হাজারের অধিক ফ্লাইট অত্যন্ত সফলভাবে পরিচালনা করেছে।
“ফ্লাই ফাস্ট-ফ্লাই সেফ” স্লোগান নিয়ে যাত্রা শুরু করা ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স, আন্তর্জাতিক রুট সম্প্রসারনের লক্ষ্যে চলতি বছরের ডিসেম্বরে মধ্যে আরো একটি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ এয়ারক্রাফট বিমান বহরে যুক্ত করার পরিকল্পনা রয়েছে। নতুন যুক্ত হওয়া এয়ারক্রাফটির বিশেষত হচ্ছে যাত্রীদের সুবিধার্থে চারটি ল্যাভাটরী রয়েছে, যা বেশি দূরবর্তী গন্তব্যের যাত্রীরা স্বাচ্ছন্দ্য অনুভব করবে।
ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বোয়িং ৭৩৭-৮০০ এয়ারক্রাফটগুলি দিয়ে কলকাতা, কুয়ালা লামপুর, ব্যাংকক, সিঙ্গাপুর, দোহা, গুয়াংজুসহ বিভিন্ন রুটে ফ্লাইট পরিচালনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। খুব শীঘ্রই ঢাকা-কাঠমুন্ডু রুটে সপ্তাহে তিনটির অধিক ফ্লাইট পরিচালনারও পরিকল্পনা রয়েছে। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ