ঢাকা, সোমবার 31 October 2016 ১৬ কার্তিক ১৪২৩, ২৯ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

রাজবাড়ীর পাংশায় ইসলামী ব্যাংকের ৩০৮তম শাখা উদ্বোধন

ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড-এর ৩০৮তম শাখা গতকাল রোববার রাজবাড়ীর পাংশায় উদ্বোধন করা হয়েছে। রাজবাড়ী-২ আসনের সংসদ সদস্য মো. জিল্লুল হাকিম প্রধান অতিথি হিসেবে এ শাখা উদ্বোধন করেন। ব্যাংকের ম্যানেজিং ডাইরেক্টর ও প্রধান নির্বাহী মোহাম্মদ আবদুল মান্নান-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ব্যাংকের রিস্ক ম্যানেজমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান মো. আবদুল মাবুদ, পিপিএম ও পরিচালক প্রফেসর ড. মো. সিরাজুল করিম। স্থানীয় বিশিষ্টজনদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নারী নেত্রী মিসেস সাঈদা হাকিম, পাংশা উপজেলা চেয়ারম্যান মো. ফরিদ হাসান ওদুদ, পাংশা সরকারি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ কেএম শফিকুল মোর্শেদ আরজু, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মো. হাসান আলী বিশ্বাস, শিল্প ও বণিক সমিতির সভাপতি নিখিল কুমার দত্ত, পৌরসভার কাউন্সিলর মিসেস দুর্গা রানী পাল। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ব্যাংকের ডেপুটি ম্যানেজিং ডাইরেক্টর মো. হাবিবুর রহমান ভূঁইয়া, এফসিএ, এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট ও ডেভেলপমেন্ট উইং প্রধান মো. মোশাররফ হোসাইন, সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ও বরিশাল জোন প্রধান মো. আবদুস সালাম এবং শাখা ব্যবস্থাপক মো. মতিয়ার রহমান। বিপুলসংখ্যক ব্যবসায়ী, পেশাজীবী ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

শাখা উদ্বোধনের প্রাক্কালে শনিবার ‘ইসলামী ব্যাংক ব্যবস্থার শ্রেষ্ঠত্ব ও সাফল্য’ শীর্ষক সেমিনার শাখা প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হয়। ব্যাংকের ম্যানেজিং ডাইরেক্টর মোহাম্মদ আবদুল মান্নান-এর সভাপতিত্বে সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন ব্যাংকের রিস্ক ম্যানেজমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান মো. আবদুল মাবুদ, পিপিএম এবং বিশেষ অতিথি ছিলেন পরিচালক প্রফেসর ড. মো. সিরাজুল করিম।  মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ব্যাংকের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ও বরিশাল জোনপ্রধান মো. আবদুস সালাম। প্রধান আলোচক হিসেবে আলোচনা করেন ইসলামী ব্যাংক শরী’আহ সুপারভাইজরি কমিটির সদস্য ড. হাসান মোহাম্মদ মঈনুদ্দীন। অন্যান্যের মধ্যে আলোচনা করেন পাংশা শাহজুঁই কামিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মুহা: আবু মুছা আশয়ারী। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মো. জিল্লুল হাকিম বলেন ইসলামী ব্যাংক ধর্ম, বর্ণ, গোষ্ঠী  নির্বিশেষে সকল মানুষের ব্যাংক। তিনি বলেন, ইসলামী ব্যাংকের সুযোগ ও সুবিধা কাজে লাগিয়ে পাংশা অঞ্চলে শিল্পায়ন, ব্যবসা-বাণিজ্য প্রসার, নতুন উদ্যোক্তা সৃষ্টি ও ব্যাপক কর্মসংস্থান সৃষ্টির সুযোগ রয়েছে। পাংশায় শাখা খোলার জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর জন্য বিনিয়োগ সম্প্রসাণের মাধ্যমে এ এলাকার মানুষের অর্থনৈতিক উন্নয়নে আরো বেশি অবদান রাখতে তিনি ব্যাংক কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান। মো. আবদুল মাবুদ পিপিএম বলেন, ইসলামী ব্যাংক এ দেশে সুষম ও টেকসই উন্নয়নের মাধ্যমে দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফুটানোর জন্য কাজ করছে। গ্রামীণ দারিদ্র বিমোচনসহ মানুষের সার্বিক জীবনমান ও আর্থসামাজিক উন্নয়নের মাধ্যমে ধনী-দরিদ্রের ব্যবধান কমাতে কাজ করছে এ ব্যাংক। একটি মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হতে তিনি ইসলামী ব্যাংকের সাথে একযোগে কাজ করার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান। প্রফেসর সিরাজুল করিম বলেন, ইসলামী ব্যাংক উৎপাদন ও বিনিয়োগে ন্যায়নীতি ও বন্টনমূলক সুবিচারের মাধ্যমে সুষম উন্নয়নে ভূমিকা পালন করছে। তিনি বলেন ইসলামী ব্যাংক কৃষি, শিল্পায়ন, তৈরি পোষাক, স্পিনিং, অবকাঠামো, যোগাযোগ, গৃহায়ণ, তথ্য-প্রযুক্তি, বৈদেশিক বাণিজ্য, রেমিটেন্স ও এসএমই খাতের উন্নয়নসহ উদ্যোক্তা উন্নয়ন, কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও নারীর ক্ষমতায়নের মাধ্যমে দেশের সার্বিক উন্নয়নে অবদান রাখছে। মোহাম্মদ আবদুল মান্নান সভাপতির ভাষণে বলেন, ইসলামী ব্যাংক এদেশের প্রতিটি পরিবারের প্রয়োজন পূরণের প্রতিষ্ঠান। এ ব্যাংক উৎপাদনমুখী, প্রয়োজনভিত্তিক ও কল্যাণধর্মী অর্থায়ন সেবার মাধ্যমে দেশের প্রতিটি পরিবারের উন্নয়নে কাজ করছে। তিনি বলেন, পল্লী উন্নয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে ইসলামী ব্যাংক নারীর ক্ষমতায়নসহ দেশের ২০ হাজার গ্রামের ১০ লক্ষাধিক পরিবারের জীবনমানের কাঙ্খিত উন্নয়ন ঘটিয়েছে। ব্যাংকের স্থানীয় আমানত স্থানীয়ভাবে বিনিয়োগের মাধ্যমে পাংশা এলাকায় শিল্পায়ন, ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসার ও অর্থনৈতিক উন্নতিসহ মানুষের সার্বিক জীবনমান উন্নয়নে কাজ করতে তিনি ব্যাংক কর্মকর্তাদের প্রতি নির্দেশনা দেন। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ