ঢাকা, সোমবার 31 October 2016 ১৬ কার্তিক ১৪২৩, ২৯ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

অসামাজিক কার্যকলাপ অর্থদণ্ডের টাকা লোপাট

শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) সংবাদদাতা : উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নে এখন জুয়াড়ুদের রমরমা আসর বসছে। জুয়ার আসরের আড়ালে চলছে নর্তকীদের দিয়ে অশ্লীল নাচ-গান ও দেহ ব্যবসা। প্রভাবশালী মহলের ছত্রছায়ায় উপজেলার বিভিন্ন স্থানে চলছে রমরমা জুয়ার আসর। দিন দিন দীর্ঘ হচ্ছে জুয়াড়ুদের মিছিল। অশিক্ষিত বেকার যুবকদের পাশাপাশি এখন শিক্ষিত বেকাররাও নাম লেখাচ্ছেন জুয়ার আসরে। জীবন জীবিকা আর রাতারাতি লাখোপতি বনে যেতে জুয়া খেলায় শামিল হলেও কার্যত নিস্ব হয়ে যাচ্ছে অনেকেই। জুয়ার আসরে নগদ টাকার পাশপাশি স্ত্রী, কন্যার গহনা সামগ্রীও বিকিয়ে দিচ্ছেন অনেকে। অবেশেষে নিরাপদ আশ্রয় থাকার ঘরটিও বিক্রি করে দেয়ার ঘটনা ঘটছে হরহামেশাই। নেশা এখন অনেকের পেশায় পরিণিত হয়েছে জুয়া। জুয়ার আসর বন্ধে উপজেলা প্রশাসন মাঝে মাঝে অভিযান পরিচালনা করলেও তাতে কোন প্রতিক্রিয়া দেখা যাচ্ছেনা শাহজাদপুর উপজেলায়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার শামীম আহমেদ’র নেতৃত্বে পুলিশ সম্প্রতি কয়েকটি জুয়ার আসর ভেঙ্গে গুড়িয়ে দিলেও পুনরায় সংগঠিত হচ্ছে জুয়াড়ুরা। তবে জুয়ার আসর পরিচালনাকারীদের অনেকেই সংবাদকর্মীদের জানায়, তারা থানা পুলিশের অনুমতি নিয়েই জুয়া ও নাচ গানের আসর বসাচ্ছে। তবে শাহজাদপুর থানা পুলিশের পক্ষ থেকে এসব অভিযোগ অস্বীকার করছে। এলাকাবাসী জুয়ার আসরের বিরুদ্ধে সোচ্চার হলেও প্রকাশ্যে কোন প্রতিকার করতে পারছেন না। কারণ যেসব এলাকায় জুয়ার আসর বসছে সেসব এলাকার প্রভাবশালী একটি মহল এদের ইন্ধন যোগাচ্ছে।
পর্নোগ্রাফি
চকরিয়া সংবাদদাতা : চকরিয়ায় ধর্ষণ ও পর্নোগ্রাফি মামলার আসামী মো. ওসমান গণি (২৮)কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
বুধবার রাতে থানার এসআই মো. মহিরের নেতৃত্বে একদল পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে। ধৃত ওসমান গণি উপজেলার হারবাং ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড বাজারপাড়ার বাসিন্দা সুলতান আহমদের পুত্র।
বিচার বটে!
ভোলাহাট (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) সংবাদদাতা : উপজেলার জামবাড়ীয়া ইউনিয়নের দূর্গাপুর গ্রামের রুস্তুম সরদারের ছেলে ফরমান আলী (৪৫) গোহালবাড়ী ইউনিয়নের বজরাটেক লম্বাটোলা গ্রামের মৃতঃ আলাউদ্দিনের তালাকপ্রাপ্ত মেয়ে (৩৫) এর সাথে মোবাইলে প্রেমের সর্ম্পক গড়ে উঠে। এক পর্যায়ে রবিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে মেয়ের বাড়ি আসে ফরমান এবং উভয়ে আপত্তিকর সর্ম্পকে জড়িয়ে পড়লে এলাকাবাসী বিষয়টি জেনে নিলে তাদের হাতেনাতে আপত্তিকর অবস্থায় ধরে ফেলে। পরে স্থানীয় ইউপি সদস্যকে খবর দিলে উভয়কে গোহালবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদে নিয়ে এসে আটক রাখে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল কাদেরকে খবর দিলে চেয়ারম্যান দ্রুত ঘটনাস্থলে হাজির হয়ে তার সভাপতিত্বে বিচার কার্যপরিচালনা করেন। বিচারে ৩৭ হাজার ২শত ও ধর্ষিতা নারীকে ২ হাজার ৫শত টাকা অর্থদণ্ড করেন। এ ব্যাপারে জুরি বোর্ডে থাকা জামবাড়ীয়া ইউপি সদস্য ইব্রাহীম জানান, ছেলেকে ও মেয়েকে যে অর্থদণ্ড করা হয়েছে তা কোন খাতে ব্যয় করা হবে জুরি বোর্ডে থাকা গোহালবাড়ী ইউপির অন্য ৪জন সদস্যের কাছে জানতে চাইলে তারা বলেন, অর্থদণ্ডের টাকা চেয়ারম্যান যা-ইচ্ছে তাই করবে বলে একতরফা জুরি বোর্ডের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন তারা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ